মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে – মাত্র ৩ দিনে মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি

মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে

বিশ্বের প্রতি চারজন মানুষের মধ্যে একজন মানুষে মুখে গন্ধ এর শিকার হয়ে থাকেন। অনেক সময়ের মুখে বন্ধের কারণে অফিসে কিংবা প্রিয়জনদের সামনে আমাদের খারাপ সিচুয়েশন পড়তে হয়। অনেকেই ভাবেন শুধুমাত্র নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করলে মুখের গন্ধ দূর হয়ে যাবে। কিন্তু মুখে গন্ধ শুধুমাত্র দাঁত ব্রাশ করার জন্য নয় আপনার শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে মুখের দুর্গন্ধ হতে পারে। তাই মুখের দুর্গন্ধ সম্পূর্ণরূপে দূর করার আগে আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে দুর্গন্ধ হওয়ার মূল কারণ কি। আপনাকে পরিষ্কারভাবে জানতে হবে মুখে দুর্গন্ধ কেন হয় এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য উপায়।

মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে
ছবি – মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে

আজকে আমরা মূলত মুখে দুর্গন্ধ কেন হয়, মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে এবং মুখের দূর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব। আশা করছি আমাদের নিয়ম গুলো ফলো করলে খুব সহজে এবং কার্যকরী উপায়ে মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে পারবেন। একই সাথে শারীরিক যে সমস্যার কারণে শারীরিক কোনো সমস্যার কারণে যদি মুখে দুর্গন্ধ হয় তা খুঁজে বের করতে পারবেন এবং প্রয়োজনীয় চিকিত্সা নিতে পারবেন। তাহলে এমন আলোচনা শুরু করা যাক।

মুখের দূর্গন্ধের কারন – মুখে গন্ধ কেন হয়

  • খাবারের পর নিয়মিত ব্রাশ না করা – প্রতিদিন দুইবার ব্রাশ করতে হয় তা আমরা সবাই জানি কিন্তু বেশিরভাগই মেনে চলি না। সকালবেলা এবং রাতে খাবারের পর ভালোভাবে কমপক্ষে 2 মিনিট ধরে ব্রাশ করা উচিত ব্রাশ করার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে প্রতিটি কোনায় খাবার কনা থাকলে তা বের হয়ে আসে। অন্যথায় দাঁতে লেগে থাকা খাবারের কণা পচে মুখে দুর্গন্ধ হবে এবং ব্যাকটেরিয়া ফাঙ্গাস তৈরি হবে। এছাড়াও খাবারের পর মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন।
  • মুখে গা হলে – কোন কারণে মুখে ঘা হলে দুর্গন্ধ হতে পারে। ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগ দেখা দিলে বা দাঁতের মাড়ি ফুলে গেলে তা থেকে দুর্গন্ধ তৈরি হতে পারে।
  • শরীরের অন্যান্য অংশের রোগ হলে – শরীরের অন্যান্য রোগের কারণে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। যেমন পরিপাকতন্ত্রের রোগ, কিডনির রো্‌ লিভারের রোগ, গলা বা পাকস্থলীর ক্যান্সার এধরনের  রপগেরক্ষেত্রে মুখে যথেষ্ট পরিমাণ দুর্গন্ধ তৈরি হয়। তাই আপনার যদি নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করার পরেও মুখে দুর্গন্ধ হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন এবং ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখুন ভেতরের সব অঙ্গ সুস্থ আছে কি না।
  • মুখে লালার পরিমান কমে গেলে –   লালা মুখের ভেতরে কোন প্রকার ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া জমতে দেয়না। কোন কারনে আপনার মুখের লালার পরিমাণ কমে গেলে বিভিন্ন ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দাঁতের মাড়ি এবং মুখের বিভিন্ন অংশে ক্ষতি করে। যেমন রমজানের সময় আমাদের মুখের লালার পরিমাণ কম থাকে তাই মুখে এক ধরনের দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়।
  • অধিক পরিমানে তামাক গ্রহন –  অধিক পরিমাণে  তামাক গ্রহনের ফলে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে।
  • জিহ্বা পরিষ্কার না করলে –  ব্রাশ করার সময় আমরা অনেক সময় জিহ্বা পরিষ্কার করতে ভুলে যাই। এতে এক ধরনের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও পাঙ্গাস তৈরি হয় যা আমাদের মুখের বিভিন্ন রকম ক্ষত তৈরি করে এবং দাঁতের মাড়ি ফুলে গন্ধ তৈরি হতে পারে। তাই চেষ্টা করবেন গোসল তার ব্রাশ করার সময় জিহ্বা ভালভাবে পরিষ্কার করতে।
  •  ভিটামিন সি এর অভাব – শরীরে ভিটামিন সি এর সমস্যা থাকলে মুখে গন্ধ হতে পারে।
  •  গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে – আপনার পেটে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে এর কারণে মুখের গন্ধ হতে পারে। তাই মুখের গন্ধ দূর না হলে কয়েকদিন থেকে খালি পেটে গ্যাস্টিক এর ট্যাবলেট খেয়ে দেখতে পারেন। আশা করছি এতে করে গন্ধ অনেকটা কমে যাবে

মুখের ব্যাকটেরিয়া দূর করার উপায়

মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে বাজারে অনেক পাবেন কিন্তু আমরা এখন কিছু প্রাকৃতিক উপায় নিয়ে আলোচনা করবো। যেমনটা আমরা উপরে বলেছি মুখের দুর্গন্ধে হওয়ার মূল কারণ হচ্ছে ব্যাক্টেরিয়া। নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করা বা দাঁতের কোনায় খাবার জমে থাকার কারণে মুখে বিভিন্ন রকম ব্যাকটেরিয়ার জন্ম নেয়। আর এইসব ব্যাকটেরিয়া পরবর্তীতে মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি ক… তাই আমরা এখন একনজরে দেখে দেবো মুখে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করার কিছু ভালো উপায়।

বেকিং সোডা – একটি স্ট্রবেরি পেস্ট ও আধা চামচ বেকিং সোডা একসাথে মিশিয়ে নিন এরপর দাঁতের  মাড়িতে পেস্টটি ভাল করে লাগিয়ে নিন এবং 5 মিনিট অপেক্ষা করুন। বেকিং সোডা এবং স্ট্রবেরি পেস্টের মিশ্রণটি দাঁতের মাড়ির ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের জন্য খুবই কার্যকর। সপ্তাহে 2 বার এই পেস্টটি ব্যবহার করতে পারেন এতে করে আপনার দাঁতের মাড়ির ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া একেবারে ধ্বংস হয়ে যাবে এবং মুখে কোন রকম দুর্গন্ধ থাকবে না।

খাবার সোডা – খাবার সোডা আমরা কমবেশি সবাই চিনি এবং ব্যবহার করি। বাজারে গেলে খুব অল্প দামে খাবার সোডার কিনতে পাওয়া যায়। যাদের মুখে অতিরিক্ত দুর্গন্ধ তারা পরিমাণমতো পানিতে হাফ চামচ খাবার সোডা মিশিয়ে নিন এরপর দিনে দুই থেকে তিনবার করে কুলি করুন। এতে করে আপনার মুখের দুর্গন্ধ অনেকটাই কমে যাবে।

সবুজ ফল খান – সবুজ ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে এবং ভিটামিন সি মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া মারার জন্য খুবই কার্যকরী এবং আপনার দাঁতের মাড়ি মজবুত রাখে। বিশেষ করে পেয়ারা এবং লেবু দাঁতের মাড়ির ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর করে। আপনার মুখের দুর্গন্ধ থাকে তাহলে কাঁচা পেয়ারা খেয়ে দেখতে পারেন এতে করে মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়ে যাবে।

ধনিয়া ও পুদিনা পাতা – দুনিয়া ও পুদিনাপাতা কাঁচাবাজারে খুব সহজে এবং অল্প দামে পেয়ে যাবেন। প্রতিদিন সামান্য পরিমাণ দুনিয়া ও পুদিনাপাতা কাঁচা চিবিয়ে খেলে দাঁতের মাড়ি শক্ত হয় এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়।

 গ্রিন টি – আমরা গ্রিন টির উপকারিতা সম্বন্ধে বলেছি নিয়মিত গ্রীন টি খেলে মুখে দুর্গন্ধ দূর হতে সাহায্য করে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি

যদিও আজকে আমাদের মূল আলোচনা ছিল মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে নিয়ে কিন্তু যে কোনো কিছুই ঘরোয়া এবং প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে নির্মল করাটা বুদ্ধিমানের কাজ। তাই আমরা এখন মুখের দুর্গন্ধ দূর করার মুখের দূর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব এবং এমন কিছু টিপস বলব যা ফলো করলে আপনি খুব অল্প খরচে এবং ঘরে বসেই নিজের মুখে দুর্গন্ধ দূর করতে পারবেন।

লবণ ও সরিষার তেলের পেস্ট – সরিষার তেল নিজে একটি অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে এজন্য বাসাবাড়িতে আচার বানানোর সময় সরিষার তেল দেয়া হয় যাতে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া জন্ম নিতে না পারে। একই সাথে লবণ নিয়ে একটি প্রিজারভেটিভ হিসেবে কাজ করে অর্থাৎ কোন ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে দেয় না। আপনি সামান্য পরিমাণ লবণ এবং সরিষার তেল একত্রিত করে নিয়মিত দাঁতের মাড়িতে মাসাজ করতে পারেন এতে করে দাঁতের মাড়িতে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারবে না এবং আপনার মুখের দুর্গন্ধ অনেকাংশে কমে যাবে।

ডালিমের খোসা ব্যবহার করুন – শুনে অবাক লাগলেও এটা সত্য যে ডালিমের খোসা যে রস থাকে তা এক ধরনের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে অর্থাৎ ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে অনেক বেশি কার্যকরী। তাই দাঁতের দুর্গন্ধ থাকলে সামান্য পানিতে ডালিমের খোসা ভিজিয়ে তা গরম করুন এবং তা মাউথ ফ্রেশনার এর মত মুখে দিয়ে কুলি করুন।

লবঙ্গ -মুখে অতিরিক্ত দুর্গন্ধ থাকলে লবঙ্গ চিবিয়ে খেতে পারেন এটি মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য খুবই কার্যকরী একটি উপায় 

মৌরি  – এছাড়াও মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য মৌরি চিবিয়ে খেতে পারেন অথবা চায়ের সাথে মিশিয়ে খেতে পারেন

পেয়ারা পাতা – পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে এবং কাঁচা পেয়ারা দাঁতের মাড়ি শক্ত করে এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য খুবই কার্যকরী। এটা আমরা সবাই জানি কিন্তু পেয়ারা পাতা ও যে একটি অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর করে তা আমরা হয়তো অনেকেই জানিনা। তাই আপনি মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য কাঁচা পেয়ারার পাতা ব্যবহার করতে পারেন।

মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে

বর্তমানে বাজারে মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে বিভিন্ন কোম্পানির পাওয়া যাচ্ছে এগুলোকে মাউথ ফ্রেশনার বলা হয় ফার্মেসিতে গিয়ে যেকোনো একটি কোম্পানির মাউথ ফ্রেশনার কিনে আনতে পারেন। ছবিতে যেমন দেখতে পাচ্ছেন এরকম মাউথ ফ্রেশনার গুলো সাধারণত ১০০ থেকে ১২০ টাকার মত দাম হয়ে থাকে। সামান্য পানির সাথে মাউথ ফ্রেশনার পরিমাণ মতো মিশিয়ে মুখের ভেতর নিয়ে ভালো করে কুলি করুন এতে করে মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হয়ে যাবে এবং আপনার মুখে দুর্গন্ধ তাৎক্ষণিকভাবে কমে যাবে। তবে আমরা সাজেশন দিব শুরুর দিকে মাউথ ফ্রেশনার ব্যবহার না করে উপরে আমরা যে মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি গুলো নিয়ে আলোচনা করেছি সেগুলো ফলো করতে পারেন। এতে করে লম্বা সময়ের জন্য আপনার মুখে দুর্গন্ধ দূর হবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার খাবার

তেলে ভাজা খাবার এবং ঝাল জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন কেননা এ ধরনের খাবার গুলো আপনার হজম শক্তির কমিয়ে দেয় এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সৃষ্টি করে বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রে মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার প্রধান এবং একমাত্র কারণ হচ্ছে গ্যাস্টিকের সমস্যা থাকে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে ঠাকুরের সাথে গন্ধ বেরোবে এবং মুখে দুর্গন্ধ তৈরি হবে তাই  সব সময় চেষ্টা করবেন ডুবো তেলে ভাজা  খাবারএবং ঝাল জাতীয় খাবার সম্পূর্ণরূপে এড়িয়ে চলতে হবে। আর খাবারের পর অবশ্যই নিয়মিত ব্রাশ করতে হবে। আপনি চাইলে মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে ও ব্যবহার করতে পারেন।

মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে

উপরে আমরা মুখের গন্ধ দূর করার স্প্রে – মাত্র ৩ দিনে মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে। আশা করছি ব্লগ টি আপনাদের অনেক উপকারে এসেছে। ভালো লাগলে আপনার বন্ধু’ এবং প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এছাড়া আমাদের সাপোর্ট করতে চাইলে আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে লোকটি শেয়ার করতে পারেন। আমরা নিয়মিত স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভিন্ন ধরনের পোষ্ট শেয়ার করার চেষ্টা করে থাকি। আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য ব্লগ গুলো পড়ার অনুরোধ জানিয়ে আজকের মত এখানেই শেষ করলাম। ধন্যবাদ ।

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment