শিমুল তুলার বালিশ দাম । আসল শিমুল তুলা চেনার উপায় । শিমুল তুলার পাইকারি বাজার

শিমুল তুলার বালিশ দাম

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই। ঘুম আমাদের সকলের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ন ও অপরিহার্য একটি অংশ। সুস্থ থাকার জন্য প্রতিদিন কমপক্ষে ৬ ঘন্টা ঘুমানো একজন সুস্থ মানুষের জন্য প্রয়োজন। ঘুমানোর জন্য সুন্দর পরিবেশের পাশাপাশি ভালো বালিশ খুব প্রয়োজন। আর ভালো বালশের কথা আসলেই সবার আগে আমাদের মাথায় শিমুল তুলার বালিশের কথা আসে। শিমুল তুলাকে বলা হয় তুলার রাজা।

শিমুল তুলার বালিশ দাম
ছবি: শিমুল তুলার বালিশ দাম

বর্তমানে বাজারে অনেক আর্টিফিশিয়াল তুলা, ফাইভার তুলা, গার্মেন্টস জুট সহ নানা রকম তুলার বালিশ পাওয়া যায় যা দামে সামান্য কম কিন্তু অতিরিক্ত নরম বালিশ কিংবা অতিরিক্ত শক্ত বালিশে ঘুমানো আমাদের শরীরের জন্য মোটেই ভালো নয়। আজকে আমরা মূলত শিমুল তুলার বালিশ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করবো। শিমুল তুলার বালিশ দাম কত, আসলে শিমুল তুলা চেনার উপায় এই সকল প্রশ্নের উত্তর জানতে পারবেন আজকের ব্লগে। চলুন তাহলে কথা না বাড়িয়ে আলোচনা শুরু করা যাক।

আসল শিমুল তুলা চেনার উপায়

ঘুমানোর জন্য শিমুল তুলার বালিশ সেরা। কিন্তু আপনি যদি আসল শিমুল তুলা চিনতে না পারেন তাহলে শিমুল তুলার বালিশ ব্যবহারের সুফল আপনি পাবেন না। বর্তমানে বাজারে হরেক রকমের আর্টিফিশিয়াল তুলা চলে এসেছে। এছাড়াও কিছু ইম্পোর্টেড চাইনিজ তুলা বর্তমানে পাওয়া যায় যা দেখতে প্রায় শিমুল তুলার মত কিন্তু গুনে মানে শিমুল তুলার মত নয়। তাই আপনি যদি শিমুল তুলা চিনতে না পারেন তাহলে ধোকার শীকার হবেন। চলুন তাহলে একনজরে আসলে শিমুল তুলা ও নকম শিমুল তুলার পার্থক্য দেখে নেই।

  • তুলার রঙ: আসল শিমুল তুলার রঙ কিছুটা বাদামি কালারের হয়। আর ইম্পোর্টেড চাইনিজ তুলা সম্পূর্ন সাদা হয়। তাই দোকানদার যদি দুই নাম্বার তুলা শিমুল তুলা বলে চালানোর চেষ্টা করে তাহলে তা নজরে রাখবেন।
  • তুলার বিচি: অরিজিনাল তুলার মধ্য ছোট ছোট বীজ বা বিচি থাকে। কিন্তু ইম্পোর্টেড ও নকল তুলার কোন বীজ থাকবে না। আর থাকলে ও খুবই সামান্য থাকবে। তাই তুলার বীজ বা বিচি দেখেও আসলে শিমুল তুলা চিনে নিতে পারেন।
  • তুলার ওজন: আসলে শিমুল ওজন অন্যান্য তুলার চেয়ে বেশি হয়। উদাহরন স্বরূপ একটি আদর্শ বালিশ বানাতে শিমুল তুলা লাগে ১ কেজি থেকে ১ কেজি ৩০০ গ্রাম কিন্তু আর্টিফিশিয়াল তুলা লাগে ৬০০ থেকে ৭০০ গ্রাম।
  • তুলার দাম: আসল শিমুল তুলার দাম অন্যান্য তুলার চেয়ে অনেক বেশি হয়। তাই আপনি যদি বুঝতে পারেন দোকানি আপনাকে কমদামে  তুলা দেয়ার চেষ্টা করছে তাহলে বুঝতে পারবেন এটা আর যাই হোক আসল তুলা না।

শিমুল তুলার পাইকারি বাজার

যারা শিমুল তুলার ব্যবসা করতে চান বা শিমুল তুলার ভালিশের ব্যবসা করতে চান তারা অনেকেই একটি প্রশ্ন করেন সেটা হলো শিমুল তুলা কিনবেন কোথা থেকে অর্থাৎ শিমুল তুলার পাইকারি বাজার কোথায়। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিমুল তুলা আসে সিলেটের তাহিরপুর থেকে। আর বড় বড় তুলার আড়ত সব সেখানেই। আপনি যদি পাইকারি ব্যবসা করতে চান তাহলে তাহিরপুরে বা সিলেট থেকে আনতে পারলে ভালো হয়।

তবে সিলেট থেকে সরাসরি আনা সম্ভাব না হলে বর্তমানে অনেক ফেইসবুক ফেইজ আছে যারা অনলাইনের মাধ্যমে সাপ্লাই করে। তাদের সাথে যোগাযোগ করে অনলাইনের মাধ্যমে তুলা এনেও ব্যবসা করতে পারেন। তবে শুরুর দিকে আমাদের সাজেশন থাকবে যদি সম্ভব হয় সরাসরি গিয়ে আড়ত থেকে দেখে তুলা কিনার চেষ্টা করুন। প্রথম কয়েকবার আনার পর ভালো সম্পর্ক হয়ে গেলে তারপর আপনি না গিয়েও ফোনে ফোনে ব্যবসা করতে পারবেন।

শিমুল তুলার বালিশ দাম

এতক্ষন আমরা শিমুল তুলার ভালো দিক ও পাইকারি বাজার সম্পর্কে আইডিয়া চেষ্টা করেছি। এখন অনেকের মনের প্রশ্ন জাগতে পারে শিমুল তুলার বালিশের দাম কেমন। সময়ের সাথে শিমুল তুলার বালিশের দাম ও বাড়তে কমতে পারে। কিন্তু আমরা একটা আইডিয়া দেয়ার চেষ্টা করবো। ১ কেজি ৩০০ গ্রামের একটি শিমুল তুলার বালিশের দাম পড়বে আনুমানিক ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা। অন্যদিকে নকল তুলার বালিশ নিলে ৫০০ টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন।

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী আছে যারা নকল ও ইম্পোর্টেড তুলার শিমুল তুলা বলে বেশি দামে বিক্রি করার চেষ্টা করে। তাই তুলা কিনার আগে অবশ্যই তুলার কোয়ালিটি চেক করে নিশ্চিত হয়ে নিবেন এটা আসল শিমুল তুলা কি না। ভালো হয় বালিশ না কিনে আলাদা শিমুল তুলা কিনে নিন তারপর নিজে বালিশ বানিয়ে নিন। এক্ষেত্রে ধোকা খাওয়ার সম্ভাবনা কমবে।

কার্পাস তুলার দাম

কার্পাস তুলা ২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশে খুবই জনপ্রিয় একটি তুলা হিসেবে কৃষকরা চাষ করে আসছে। রুপালি-১ কার্পাস তুলা চাষ করে কৃষকরা খুব লাভবান হয়েছে। এই হাইব্রিড জাত তুলা মানের দিক থেকে কিছুটা শিমুল তুলার মত ই কিন্তু সুবিধা হচ্ছে এই তুলা চাষে খরচ অনেক কম হয় আর বাজারে সঠিক দাম পাওয়া যায়। বর্তমান বাজারে বিঘা প্রতি প্রায় ১৫ হাজার টাকা লাভ করা সম্ভব এই কার্পাস তুলা চাষে। তাই আপনার যদি বাজেট একটু কম হয় তাহলে বাজার থেকে ফাইভার তুলা না কিনে আমাদের সাজেশন থাকবে কার্পাস তুলা কিনতে পারেন। এই তুলা মানের দিক থেকে শিমুল তুলার কাছাকাছি কিন্তু দামে অনেকটাই কম।

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment