জুতা তৈরির মেশিন দাম কত । স্যান্ডেল তৈরির মেশিন দাম । চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ

জুতা তৈরির মেশিন দাম কত

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা। বর্তমানে চাকরির বাজার পূর্বের যেকোন সময়ের তুলনায় অনেক কঠিন হয়ে গেছে। সরকারি চাকরির পাশাপাশি বেসরকারি চাকরি পাওয়া ও এখন অনেক কঠিক হয়ে পড়েছে। তাই বর্তমানে চাকরির পেছনে না ছুটে নিজে কিছু করার চেষ্টা করাটাই বেশি বুদ্ধিমানের কাজ। আজকে আমরা আলোচনা করবো অল্প টাকায় জুতা তৈরির মেশিন কিনে কিভাবে খুব সহজেই ব্যবসা করতে পারেন।

জুতা তৈরির মেশিন দাম কত
ছবি: জুতা তৈরির মেশিন দাম কত

আমাদের আজকের ব্লগে আমরা জুতা তৈরির মেশিন দাম কত । স্যান্ডেল তৈরির মেশিন দাম । চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। জুতা পায়ে দেয় না এমন মানুষ আপনি খুজে পাবেন না। অর্থাৎ এটা অনেক বড় একটা বাজার। আপনি চাইলে খুবই অল্প পুজিতে চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নিয়ে এবং জুতার একটি মেশিন কিনে খুব সহজেই মাসে কয়েক হাজার টাকা পর্যন্ত লাভ করতে পারবেন। চলুন তাহলে কথা না বাড়িয়ে আজকের আলোচনা শুরু করা যাক।

জুতার ব্যবসা শুরু করবেন যেভাবে

জুতার ব্যবসা শুরুর জন্য আপনার মূলত দুইটি স্টেপ ফলো করতে হবে।

  1. জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নেয়া।
  2. জুতার মেশিন কিনে কাজ শুরু করা।

যেমনটা আমরা বলেছি জুতার ব্যবসা শুরু করতে হলে আপনাকে প্রথমে জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নিতে হবে। কোথা থেকে ও কিভাবে জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নিবেন তা নিয়ে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করবো। জুতার চামড়া তৈরির প্রশিক্ষন নেয়া হয়ে গেলে আপনি খুবই স্বল্প পরিসরে ও দুই থেকে তিনজন লোকবল নিয়ে শুরু করে দিতে পারেন জুতা তৈরি করা। তবে প্রথম অবস্থায় চাইলে নিযে একাই শুরু করতে পারেন।

জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

বর্তমানে জুতা তৈরি হচ্ছে অল্প পুজিতে ভালো ব্যবসাগুলোর মধ্যে অন্যতম। কিন্তু সঠিক প্রশিক্ষন ছাড়া এই ব্যবসা শুরু করলে লাভের চেয়ে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন না কোথা থেকে জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নিতে হয় কিং জুতার ব্যবসা সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়। বাংলাদেশে বর্তমানে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আছে যারা এই প্রশিক্ষন দিয়ে থাকে।

  1. এসএমই ফাউন্ডেশন।
  2. লক্সওয়ার ফাউন্ডেশন।

এসএমই ফাউন্ডেশন: এসএমই মূলত একটা সরকারী প্রতিষ্ঠান। যারা সরকারীভাবে কম খরচে চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ নিতে চান বা জুতার ব্যবসা কিভাবে শুরু করবেন এইসব কিছু হাতে কলমে শিখাবে এই প্রতিষ্ঠান। প্রশিক্ষন শেষে সার্টিফিকেটের ও ব্যবস্থা রয়েছে। তাই আপনি যদি সরকারিভাবে জুতা তৈরির প্রশিক্ষন নিতে চান তাহলে এই প্রতিষ্ঠান টা আপনার জন্য ভালো হবে।

লক্সওয়ার ফাউন্ডেশন: লক্সওয়ার ফাউন্ডেশন মূলত বেসরকারি প্রতিষ্ঠান যারা নির্দিষ্ট কোর্স ফি এর বিনিময়ে আপনাকে চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ দিবে। সাধারনত সরকারি প্রতিষ্ঠানের তুলনায় খরচ কিছুটা বেশি পড়বে তবে প্রশিক্ষন শেষে আপনাকে সরাসরি মনিটরিং করবে। তাই আপনার যদি আর্থিক সংকট না থাকে তাহলে আমরা সাজেশন করবো লক্সওয়ার ফাউন্ডেশনে ট্রেনিং নিতে পারেন।

সরকারের হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কেন্দ্র: হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কেন্দ্র সরকারি প্রতিষ্ঠান যেখান থেকেও আপনি চাইলে জুতা

এছাড়াও জেলা ও উপজেলা ভিত্তিক অনেক সরকারি, আধা সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আছে যারা খুব ভালো মানের চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে এবং প্রশিক্ষণ শেষে সার্টিফিকেট এর ব্যবস্থা ও রয়েছে। তাই আপনি যে এলাকায় আছেন সেখানে খবর নিতে হবে।

স্যান্ডেল তৈরির মেশিন দাম

এতক্ষন আমরা স্যান্ডেল তৈরির নিয়ম ও প্রশিক্ষণ নিয়ে বিস্তারিত জানলাম। সরকারি বা বেসরকারি যেকোন একটি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নেয়া হয়ে গেলে এবার আপনি স্যান্ডেল তৈরির মেশিন কিনে কাজ শুরু করতে হবে। আপনারা অনেকে জানতে চেয়েছেন জুতা তৈরির মেশিন দাম কত। বাজারে বেশ কয়েক ধরনের জুতা তৈরির মেশিন পাওয়া যায়। বিভিন্ন ধরনের মেশিনের দাম ও কাজ ভিন্ন। নিচে আমরা জুতা তৈরির মেশিন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো সাথে আপনি স্যান্ডেল তৈরির মেশিন দাম ও জানতে পারবেন।

জুতা তৈরির মেশিন দাম কত
জুতা তৈরির মেনুয়াল মেশিন

 

  • স্যান্ডেল তৈরির মেনুয়াল মেশিন: যারা অল্প টাকায় জুত তৈরির মেশিন কিনতে চান তারা স্যান্ডেল তৈরির মেনুয়াল মেশিন টি কিনতে পারেন। বর্তমানে বাজারে এই মেশিনের দাম ৪০ হাজার টাকার মত পড়বে। তবে এই ক্ষেত্রে সবকিছু অটোমেটিক হবে না। কিছু জিনিস আপনি নিজে মেনুয়ালভাবে করতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনি নিজে করার পাশাপাশি দুই একজন লোক রাখতে হবে।
জুতা তৈরির মেশিন দাম কত
জুতা তৈরির রোলার মেশিন
  • জুতা তৈরির রোলার মেশিন: জুতা তৈরির মেনুয়াল মেশিন দিয়ে জুতা তৈরি করতে আপনার পরিশ্রম কিছুটা বেশি হবে। আপনার বাজেট যদি কিছুটা বেশি হয় আপনি জুতা তৈরির রোলার মেশিন কিনতে পারেন। যদিও শুধুমাত্র এই মেশিন দেয়েই জুতা তৈরি করতে পারবেন না। এর সাথে আরো কিছু উপকরন প্রয়োজন হবে। বর্তমান বাজারে জুতা তৈরির রোলার মেশিনটি ৮০ হাজার টাকায় ক্রয় করতে পারবেন।
জুতা তৈরির মেশিন দাম কত
পাওয়ার প্রেস মেশিন
  • পাওয়ার প্রেস মেশিন: এই মেশিনটির বর্তমান দাম প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার এর মত পড়বে। এই মেশিন অন্যান্য মেশিনের চেয়ে একটু দামি কারন জুতা তৈরির চামড়া সম্পূর্ন অটোমেটিকভাবে করা যায়। তাই আপনার যদি বাজেট এর সমস্যা না থাকে তাহলে আমরা সাজেস্ট করবো আপনি এই পাওয়ার প্রেস মেশিন টা ক্রয় করে জুতা তৈরির ব্যবসা করতে পারেন।

জুতার ব্যবসা করে মাসে কত আয় করা যাবে?

যারা জুতার ব্যবসা শুরু করতে চান প্রথম অবস্থায় সবার মাথায় একটা প্রশ্ন কাজ করে সেটা হচ্ছে এই ব্যবসা করে মাসে কত টাকা আয় করা সম্ভব। এটা যেহেতু একটা ব্যবসা তাই আপনার আয় কত হবে তা সম্পূর্ন নির্ভর করে আপনি কতটুকু সেল করছেন তার উপর। তবে প্রাথমিক অবস্থায় মাসে ২৫ থেকে ৩০ হাজার আয় করা সম্ভব। তবে সময়ের সাথে আপনি যদি সঠিকভাবে ব্যবসা প্রসার করতে পারেন তাহলে মাসে এক লক্ষ  টাকা ও আয় করা সম্ভব।

জুতা তৈরির মেশিন কিভাবে ক্রয় করবনে?

বর্তমানে ঢাকার বিভিন্ন যায়গায় জুতা তৈরির মেশিন কিনতে পাওয়া যায়। তবে আপনি চাইলে সরাসরি চায়না বা জাপান থেকেও নতুন মেশিন ইম্পোর্ট করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনি দেশি কোন ইম্পোর্টার এর সহযোগিতা নিতে হবে। খরচ একটু বেশি হবে। আর আপনার বাজেট যদি কম থাকে অথবা ইম্পোর্ট করতে যদি ঝামেলা হমে হয় তাহলে ঢাকায় বিভিন্ন যায়গা থেকে সরাসরি দেখে কিনতে পারেন। সেক্ষেত্রে মেশিনের কয়ালিটি ভালোভাবে দেখে নিতে হবে। বাংলাদেশ থেকে নেয়ার আরেকটা সুবিধা হচ্ছে আপনি চাইলে সেকেন্ড হ্যান্ড মেশিন ও কিনতে পারবেন কম দামে।

স্যান্ডেল তৈরির কাঁচামাল কোথায় পাওয়া যায়

এতক্ষন আমরা জুতা তৈরির মেশিন দাম কত ও চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ কোথা থেকে নিবেন এইসব ব্যাপারে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করেছি। এখন আমরা জানবো জুতা তৈরির কাঁচামাল কোথায় পাবেন। বাংলাদেশে অনেক বড় বড় কোম্পানি আছে যারা ছোট ব্যবসায়ীদের শুরুর দিকে সহজ শর্তে কাচামাল দিয়ে থাকে যেনো তারা ব্যবসা করতে পারে। শুরুর দিকে আপনিও এমন কিছু কোম্পানির নাম খুজে বের করতে হবে যারা নতুন ব্যবসায়ীদের সহজ শর্তে কাঁচামাল দিয়ে থাকে।

জুতা কোথায় বিক্রি করবেন?

জুতা তৈরি করা তো হলো কিন্তু এখন বিক্রি করবেন কোথায়? আপনি বেশ কিছু উপায়ে জুতা বিক্রি করতে পারেন। প্রথম হচ্ছে আপনি চাইলে বিভিন্ন বাজারে সরাসরি দোকান গুলোতে নিজের জুতা প্রোমোট করতে পারেন এবং শুরুর দিকে বাজারের অন্যন্য জুতার চেয়ে কিছুট কম দামে দেয়ার চেষ্টা করবেন। সময়ের সাথে তারাই পরবর্তীতে আপনার কাছে থেকে জুতা কিনবে।

এছাড়াও শুরুর দিকে আপনি একজন লোক রাখতে পারেন যে জেলা, উপজেলা ভিত্তিক আপনার জুরা বিভিন্ন বাজারে গিয়ে বিক্রি করবে। এভাবে শুরুর দিকে নিজে পরিশ্রম করে মার্কেটিং করলে একসময় আপনার জুতার কিছু পার্মানেন্ট বায়ার হয়ে যাবে। তারপর তারা সরাসরি আপনার কাছে আসবে স্যান্ডেল কিনতে। আপনার আর যাওয়া লাগবে না।

জুতা তৈরিতে সতর্কতা

জুতা যেহেতু মানুষের প্রসাধনীর একটা অংশ তাই জুতার তৈরির ক্ষেত্রে আপনাকে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। অর্থাৎ আপনি কি টাইপের জুতা তৈরি করছেন সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ন। সবসময় চেষ্টা করতে হবে চলমান ফ্যাশনের সাথে তাল মিলিয়ে স্যান্ডেল তৈরি করা। এক্ষেত্রে আপনার নতুন নতুন মেশিন কিনতে হবে না। শুধু ডিজাইনে নতুনত্ব আনতে হবে। সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে না পারলে এই ব্যবসায় লস হওয়ার সম্ভাবনা ও আছে।

এছাড়াও শুরুর দিকে অনেক ক্ষেত্রে বাকিতে বিক্রি করা লাগতে পারে। তাই কার কাছে নিজের জুতা বিক্রি করছেন এটা খুবই গুরুত্বপূর্ন। তাই শুরুর দিকে আপনাকে ব্যবসা পরিচালনা করার ক্ষেত্রে খুবই সাবধান থাকতে হবে।

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

1 thought on “জুতা তৈরির মেশিন দাম কত । স্যান্ডেল তৈরির মেশিন দাম । চামড়ার জুতা তৈরির প্রশিক্ষণ”

Leave a Comment