টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়
টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়

টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় | tiktok থেকে টাকা ইনকাম সহজ উপায়

টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়

হ্যালো বন্ধুরা, বর্তমানে সারা বিশ্বে যেসকল এপ মানুষকে বিনোদন দিয়ে যাচ্ছে টিকটক তার মধ্যে অন্যতম। কিন্তু এই টিকটক এপ ব্যবহার করতে গিয়ে আমাদের দেশের তরুনদের বড় একটি অংশ আসক্ত হয়ে তাদের মূল্যবান সময় নষ্ট করে দিচ্ছে। কিন্তু আজকে আমরা আলোচনা করবো টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়। অর্থাৎ আপনি যদি টিকটকের প্রতি আসক্ত হোন তাহলে এই আসক্তিকে আয়ের মাধ্যম হিসেবে  কাজে লাগান।

টিকটক থেকেই বর্তমানে আমাদের দেশে মাসে লাখ টাকা ইনকাম করছে এমন এনেক টিকটকার আছে। আজকে আমরা আপনাদের বলবো টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় আর কিছু উপায় বলে দিবো যার মাধ্যমে আপনারা চাইলেও টিকটক থেকে ইনকাম শুরু করতে পারবেন। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

আরো পড়ুন: অনলাইনে গামকা মেডিকেল রিপোর্ট চেক | gamca medical report check online bangladesh

টিকটক কি?

বিশ্বে যেসকল মোবাইল এপ্লিকেশন কম সময়ে নিজেদের অবস্থা পোক্ত করেছে টকটক তাদের মধ্যে অন্যতম। টিকটক মূলত অনলাইন শর্ট ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম অর্থাৎ ইউটিউব বা ইন্সটাগ্রামের সাথে টিকটকের প্রধান পার্থক্য ছিলো এখানে ব্যবহারকারীকে শর্ট ভিডিও দিতে হবে যা এক মিনিট বা তারচেয়ে ও ছোট। সময়ের সাথে সাথে মানুষ পূর্বের যেকোন সময়ের তুলনায় বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়েছে এবং মানুষের হাতে এখন সময় কম তাই তারা শর্টকার্টে বিনোদন চায়।

পূর্বে যেমন আমরা বিনোদনের জন্য সাধারনত বড় নাটক, সিনেমা বা বড় কোন বিনোদনমূলক আনুষ্ঠান দেখতাম কিন্তু বর্তমান জেনারেশন বিনোদনের জন্য ছোট ছোট মজার ভিডিও দেখা ই বেশি পছন্দ করে। যেহেতু টিকটকে সব ভিডিও এক মিনিট বা তারো কম তাই এখানে ভিডিও বানানোর জন্য সময় ও লাগে কম আর ভিডিও আপলোড করার সাথে সাথে ইনকামের সুযোগ ও বেশি। তাই চলুন আমরা জেনে নেই টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

আরো পড়ুন: ধুলোকণা নাটক আজকের পর্ব | Dhulokona today full episode download

টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়

উপরে যেমনটা আমরা আলোচনা করেছি বর্তমানে টিকটক এর ব্যবহারকারি বিশ্বের অন্য যেকোন মোবাইল এপের চেয়ে দ্রুত বাড়ছে তাই আপনি যদি টিকটকের ব্যবহারকারী না হয়ে নিজে ভিডিও বানান তাহলে আপনি হবেন ক্রিয়েটর। অর্থাৎ আপনি শুধু ব্যবহারকারী না হয়ে নিজেই ভিডিও আপলোড করুন এতে করে টিকটক থেকে ইনিকামের পথ খুলে যাবে।চলুন তাহলে দেখা যাক টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

আমরা মূলত টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় এর বেশ কয়েকটি মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করবো। তবে নতুন অবস্থায় আপনি সবগুলো উপায়ে টাকা ইনকাম না ও করতে পারেন।

#১ রেফার করার মাধমে আয় করুন:

রেফার হচ্ছে আপনি যেকোন একটি প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করে নতুন ব্যবহারকারী বানানো। অর্থাৎ আপনি বিভিন্ন উপারে মার্কেটিং করে যদি টিকটকের নতুন ইউজার আনতে পারেন তাহলে টিকটক আপনাকে বেশ ভালো একটা এমাউন্ট এর টাকা গিফট করবেন।

কিছুদিন আগে যারা টিকটক থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করেছিলো তারা মূলত এই রেফার এর মাধ্যমেই টাকা ইনকাম করেছিলো। অর্থাৎ টিকটকের পক্ষ থেকে আপনাকে একটা রেফার লিংক দেয়া হয়। যেকোন নতুন ইউজার যদি আপনার রেফার লিংক ইউজ করে টিকটক একাউন্ট খোলে তাহলে টিকটকের পক্ষ থেকে আপনি ২০০ টাকা উপহার পাবেন। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে অবশ্যই আপনার লিংক ব্যবহার করতে হবে অন্যথায় আপনি টাকা পাবেন না।

চলুন তাহলে দেখে নেই কিভাবে রেফার লিংকের মাধ্যমে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় আর এর জন্য আপনাকে কি কি স্টেপ ফলো করতে হবে।

  1. রেফার করার জন্য সর্ব প্রথম আপনার নিজের একটি টিকটক একাউন্ট থাকতে হবে। আপনার নিজের ই যদি টিকটক একাউন্ট না থাকে তাহলে রেফার লিংক পাবেন না।
  2. আপনার টিকটিক একাউন্ট প্রোফাইল থেকে রেফার লিংক টি কালেক্ট করতে হবে।
  3. রেফার লিংক কালেক্ট করার পর বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন ফেইসবুকে লিংক শেয়ার করতে পারেন।
  4. যখন ই নতুন কেউ আপনার লিংকে ক্লিক করে টিকটক এপ টি ডাউনলোড করে নতুন একাউন্ট খুলবে সাথে সাথে আপনার একাউন্টে বোনাস টাকা এসে এড হবে।

বর্তমানে টিকটকের রেফার সিস্টেম টা বন্ধ আছে। তবে আশা করা যায় দ্রুত ই এই সিস্টেম আবার চালু করবে টিকটক। 

#২ টিকটক একাউন্ট বিক্রি করে:

শুনে হয়তো অবাক হচ্ছেন টিকটক একাউন্ট বিক্রি করে দিতে বলছি দেখে। ভয় পাওয়ার কারন নেই, আমি বুঝিয়ে বলছি কিভাবে টিকটক একাউন্ট বিক্রি করে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

যেহেতু টিকটক একাউন্ট খোলা খুবই সহজ তাই আপনি চাইলে একাধিক একাউন্ট খুলতে পারেন। নতুন একাউন্ট থেকে ভালো ভালো কিছু ভিডিও আপলোড দিয়ে ফলোয়ার করুন এরপর বিক্রি করে দিন। অনেকেই আছে যারা নতুন এমন টিকটক একাউন্ট কিনতে চায় যেখানে অনরেডি কিছু ফলোয়ার আছে। তাই আপনি চাইলে নতুন নতুন একুন্ট খুলে কিছু ফলোয়ার হয়ে গেলেই একাউন্ট টি বিক্রি করে দিতে পারেন। আর এর জন্য আপনাকে খুব বেশি কষ্ট করতে হবে না।

তবে এক্ষেত্রে আপনার নিজের একটা পার্মানেন্ট আডি রাখবেন। আপনার মেইন আইডি সেল না করে পাশাপাশি নতুন একাউন্ট নিয়ে কাজ করতে পারেন। তাহলে আপনারা দেখলেন কিভাবে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

#৩ পেইড কন্টেন্ট বা প্রোমোশন:

আপনি যদি নতুন টিকটকার হয়ে থাকেন তাহলে এই পদ্ধতি আপনার জন্য নয়। তবে কিছুদিন টিকটকে ভিডিও দেয়ার পর যখন আপনার ফলোয়ারের পরিমান বৃদ্ধি পাবে তখন আপনি পেইড কন্টেন্ট বা প্রোমোশন এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

প্রোমোশন হচ্ছে আপনি আপনার ভিডিও বা প্রোফাইলের মাধ্যমে কোন একটি নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট কে আপনার ফলোয়ারদের কাছে প্রোমোট করবেন। আপনার যদি ভালো মানের ফলোয়ার থাকে তাহলে বিভিন্ন কোম্পানি আপনার কাছে তাদের পন্য প্রোমোশনের জন্য যোগাযোগ করবে। আর প্রোমোশনের মাধ্যমে মাসে বেশ ভালো রকম ইনকাম করতে পারবেন।

তবে যেমনটা বলেছি টিকটক প্রোমশনের জন্য আপনার ভালো পরিমান ফলোয়ার থাকতে হবে নয়তো কেউ আপনার কাছে তাদের প্রোডাক্ট প্রোমোট করাতে চাইবেনা। তাই এই পদ্ধতিতে টাকা ইনকাম করতে চাইলে নিজের ফলোয়ার বাড়ানোর দিকে মনোযোগ দিন। তাহলে আমরা জানলাম কিভাবে পেইড কন্টেন্ট বা প্রোমোশনের মাধ্যমে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

#৪ টিকটক ডোনেশন:

টিকটক থেকে সেলিব্রেটি টিকটকাররা যেপরিমান টাকা ইনকাম করে তার বড় একটি অংশ হয় টিকটক ডোনেশনের মাধ্যমে। বর্তমানে টিকটক ডোনেশনের মাধ্যমে আয় করা সবচেয়ে সহজ এবং এনকামের পরিমান টা ও অন্যান্য মাধ্যমের চেয়ে বেশি। চলুন দেখে নেই কিভাবে টিকটকের ডোনেশনের মাধ্যেমে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়।

  1. প্রথমে আপনি টিকটক থেকে লাইভে যাবেন এবং লাইভে ডোনেশন এর অপশন টা অন করবেন।
  2. আপনার যদি ভালো পরিমান ফলয়ার থাকে তাহলে আপনার ফলোয়ার রা আপনাকে বিভিন্ন স্টিকার ও কয়েন পাঠাবে।
  3. আপনি ওই সকল কয়েন একাউন্টে জমা করবেন এবং ওই সকল কয়েন দিয়ে ডায়মন্ড কনতে পারেবেন।
  4. সর্বশেষ ডায়মন্ড ই টাকায় রূপান্তর করে তুলে নিতে পারবনে।

তাহলে আমরা দেখলাম কিভাবে টিকটক ডোনেশনের মাধ্যমে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়। তবে ডোনেশনের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে হলে প্রথমে আপনার ভালো পরিমান ফলোয়ার থাকতে হবে। কারন ফলোয়ার কম হলে আপনার ডোনেশনের পরিমান ও কম আসবে।

#৫ টিকটক এড থেকে আয়:

এক সময় ছিলো যখন টিকটকে ইউটিউব, ইন্সটাগ্রামের মত এড থেকে টাকা আয় করা যেতো না। তবে বর্তমানে টিকটকেও এড সিস্টেম চালু হয়েছে এবং টিকটকের এডের মাধ্যমে ইউটিউব বা ইন্সটাগ্রাম এর মত খুব ভালো পরিমান এর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাই আপনি যদি একজন টিকটকার হন তাহলে টিকটক এড হতে আপনার ইনকামের বড় একটি উপায়।

#৬ টিকটক বায়ো:

আপনি যদি বড় বড় টিকটক সেলিব্রেটিদের প্রোফাইল চেক করেন তাহলে তাদের বায়োতে কিছু লিংক দেখতে পাবেন। হয়তো কোন ওয়েব সাইট কিংবা কোন প্রোডাক্ট এর লিংক। আপনি যদি তাদের ওই লিংকে ক্লিক করে কিছু ক্রয় করেন তাহলে সেই সেলিব্রেটি একটা এমাউন্ট কমিশন পাবে।

অর্থাৎ আপনি চাইলে আপনার টিকটক একাউন্ট এর বায়োতে নির্দিষ্ট কোন প্রোডাক্ট বা ওয়েবসাইট প্রোমোট করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এক্ষেত্রেও আপনার যত বেশি ফলোয়ার থাকবে তত বেশি সম্ভাবনা থাকবে এমন অফার আসার। আপনার যদি প্রোফাইলে ফলোয়ার কম থাকে তাহলে এই সুযোগ গুলো আপনার থাকবে না।

আরো পড়ুন: লিথুনিয়া স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের নিয়ম, খরচ | Lithuania student visa application

টিকটক থেকে কত টাকা আয় করা যায়?

এতক্ষন তো আমরা দেখলাম কিভাবে টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায়। কিন্তু এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে টিকটক থেকে মাসে কি পরিমান টাকা ইনকাম করা সম্ভব? সত্যি বলতে কত টাকা আয় হবে এটা নির্ভর করে আপনার প্রোফাইলে ফলোয়ার কত বা উপরের নিয়ন গুলো আপনি কতটা ভালোভবে ফলো করেছেন তার উপর।

যদি সব নিয়ম ফলো করেন তাহলে আশা করা যায় মাসে ১৫ থেকে ৩০ টাকা মাসে ইনকাম করতে পারবেন। তবে আবারও বলছি কতটা ইনকাম হবে তা নির্ভর করে আপনার ফলোয়ার এর উপর এবং আপনি কি পরিমান ভিডিও আপলোড দিচ্ছেন তার উপর।

আমাদের শেষ কথা

উপরে আমরা দেখলাম টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় এবং এর বিভিন্ন উপায়। কিন্তু আপনার যদি ভিডিও কোয়ালিটি ভালো না হয় এবং ফলোয়ার এর পরিমান বেশি না হয় তাহলে দিন শেষে আপনি যথেষ্ট টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। টিকটক থেকে কিভাবে ইনকাম করা যায় এটা নিয়ে ভাবার আগে নিজের প্রোফাইলে ফলোয়ার এর পরিমান বাড়ানোর ট্রাই করুন সাথে নয়মিত ভিডিও দিন। ভালো পরিমান ফলোয়ার হয়ে গেলে ইনকাম এমনিতেই হবে।

Easy Teching

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Reply