উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম ও ভর্তির যোগ্যতা বিস্তারিত

Table of Contents show

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম

যারা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আগ্রহী তাকে অবশ্যই যে কোন স্বিকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পাস করতে হবে। তবে তিনি যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় পাশ করেছেন সেই প্রতিষ্ঠানটি অবশ্যই সরকার কর্তৃক অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান হতে হবে।

বর্তমান কমবেশি সবারই উচ্চশিক্ষা অর্জনের বাসনা মনের মধ্যে থেকেই যায়। কিন্তু আর্থিক সমস্যা অথবা পেশাজীবী কাজে এতটাই ব্যস্ত হয়ে যায় যে তাদের পড়াশোনা করার মত যথেষ্ট সময় হয়ে ওঠে না। শেষ পর্যায়ে দেখা যায় পাবলিক অথবা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পড়ার জন্য যে নির্দিষ্ট একটা সময় থাকে সেই সময়টা তাদের শেষ হয়ে যায়।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য নির্ধারিত বয়স

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য বয়স কোন ব্যাপার না বা নির্ধারিত কোন বয়স নেই। আপনারা চাইলে যেকোনো বয়সেই পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেন। তবে সে ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই এইচএসসি পাশ হতে হবে। আপনি যদি এইচএসসি পাশ হয়ে থাকেন আর আপনার যদি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার ইচ্ছা থেকে থাকে তাহলে আপনি উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে পারেন। কেননা এখানে যোগ্যতাসম্পন্ন যে কোন বয়সের লোকজন পড়তে পারবেন।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম এর মধ্যে বয়সের তেমনটা গুরুত্ব দেওয়া হয় না।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় পরিচিতি

বাংলাদেশের জাতিসংঘ কর্তৃক প্রণীত আইন অনুযায়ী উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা লাভ করেন 1992 সালের 20 অক্টোবর। এটি মূলত একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অন ক্যাম্পাস ও আউট ক্যাম্পাস নামে দুটি শিক্ষা ব্যবস্থা প্রচলিত আছে। এখানে শিক্ষা ও প্রশাসনিক কার্যক্রম চালানোর জন্য রয়েছে সাতটি একাডেমিক স্কুল ও 11 টি প্রশাসনিক বিভাগ।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কি কি বিষয় আছে

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কি কি বিষয় আছে এগুলো সবার আগে জানা বেশি জরুরী।

  • তিন বছর মেয়াদী ব্যাচেলর অফ আর্টস(BA) ব্যাচেলর অফ সোশ্যাল সায়েন্স অনার্স কোর্স
  • রয়েছে চার বছর মেয়াদি স্নাতক প্রোগ্রাম।
  • আইন বিভাগ

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিষয়ক স্নাতক কোর্সের মেয়াদ চার বছর। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য আপনাকে ৬০টি সিটের জন্য প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। পাস করা সম্ভব হলে আপনি আইন বিষয়ের উপর ভর্তির সুযোগ পাবেন। আইনের বিষয়ে ক্লাস শুধুমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকায় অবস্থিত কেন্দ্র গুলোর মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়।

  • বাংলা ভাষা ও সাহিত্য
  • ইতিহাস
  • দর্শন
  • ইসলামী অধ্যায়ন
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান
  • সমাজতত্ত্ব
  • ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য (শীঘ্রই শুরু হবে)
  • অর্থনীতি (শীঘ্রই শুরু হবে)

আপনি চাইলে যেকোনো বয়সেই উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হতে পারবেন এখানে বয়সের কোনো বাদা ধরার নিয়ম নেই।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কারা ভর্তি হতে পারবে

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় যে কেউ ভর্তি হতে পারবে। তবে ভর্তির ক্ষেত্রে তাকে অবশ্যই এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা(এইচএসসি ভোকেশনাল, দাখিল) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। যারা বিভিন্ন কারনে নির্ধারিত সময়ে এইচএসসি শেষ করে অনার্সে ভর্তি হতে পারেননি তাদের জন্য যেকোন সময় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ রয়েছে।

আর প্রতিষ্ঠানটি অবশ্যই সরকার কর্তৃক অনুমোদিত হতে হবে অর্থাৎ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাত্র-ছাত্রীরা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হতে পারবেন।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কোথায় কোথায় আছে

বাংলাদেশের অনেক জায়গায় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় আছে। আজকে আমরা বাংলাদেশের কোথায় কোথায় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় আছে সেই সম্পর্কে জানাবো

  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় গাজীপুর
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় নারায়ণগঞ্জ
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় নরসিংদী
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় মানিকগঞ্জ
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় মুন্সিগঞ্জ
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শ্রীনগর
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বরিশাল
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ঝালকাঠি
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় পিরোজপুর
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় পটুয়াখালী
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বরগুনা
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভোলা
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বগুড়া
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় গাইবান্ধা
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় সিরাজগঞ্জ
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় জয়পুরহাট
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কক্সবাজার
  • বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় খাগড়াছড়ি

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্স সমূহ

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রায় 80 থেকে 83 টির মত কোর্স চালু আছে। উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কোন কোন কোর্স চালু আছে আমরা এখন সেই বিষয় নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করব

আন্ডারগ্রাজুয়েট ও গ্রাজুয়েট কোর্স

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়র অধীনে সারা দেশে প্রায় কলেজগুলোতে রয়েছে তিন বছর মেয়াদী ডিগ্রী কোর্স। এছাড়াও রয়েছে চার বছর মেয়াদি অনার্স সমতুল্য বিবিএ কোর্স। এবং চার বছর মেয়াদি বিএ/ বিএসএস কোর্স।

স্কুল অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজি

  • কম্পিউটার প্রকৌশল
  • খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান
  • যন্ত্রপাতি প্রকৌশল
  • সফটওয়্যার প্রকৌশলে মাস্টার ডিগ্রী
  • ফার্মেসি

চলমান স্বাস্থ্য বিষয়ক কোর্স

  • বিএসসি নার্সিং
  • এমএসসি ইন পঙ্গু ব্যবস্থাপনা ও পুনর্বাসন

স্কুল অফ এগ্রিকালচার সাইন্স

  • কৃষি
  • মৎস্য বিজ্ঞান

স্কুল অব বিজনেস

  • ব্যবসায় প্রশাসন
  • মাস্টার্স অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন

ওপেন স্কুল

  • ব্যাচেলর অব বিজনেস স্টাডি

স্কুল অফ সোশ্যাল সায়েন্স, হিউম্যানিটিস এন্ড ল্যাংগুয়েজ

  • আইন
  • বাংলা ভাষা ও সাহিত্য
  • ইতিহাস
  • দর্শন
  • ইসলামী অধ্যায়ন
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান
  • সমাজতত্ত্ব
  • ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য (শীঘ্রই শুরু হবে)
  • অর্থনীতি (শীঘ্রই শুরু হবে)

স্কুল অফ এডুকেশন

  • অনার্স কোর্স
  • মাস্টার্স কোর্স

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেটের মূল্য

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় সার্টিফিকেটের মূল্য জেনারেল ছাত্রদের সার্টিফিকেট মূল্যের সমান। আসলে মূল্যের ব্যাপারটা হচ্ছে আপনি কতটুকু জানেন বুঝেন শিখেছেন এই বিষয়টা। মনে করেন আপনি কোন ভাইভা বোর্ডে ভাইভা দিতে গেছেন সেখানে বিচারকেরা মনে করলেন ঢাবির ছাত্রদেরকে নেবেন। অর্থাৎ তারা মনে করলেন ঢাবির ছাত্ররাই সবথেকে ভালো। এটা আসলে যার যার ব্যক্তিগত মতামত।

অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে একজন ঢাবির ছাত্র থেকেও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট ধারী একজন ছাত্র অনেক ভালো অবস্থানে আছে। এটা মূলত সার্টিফিকেট দিয়ে বিচার হয় না। বিচার হয় নিজের দক্ষতা নিজের শ্রম ও মেধা দিয়ে।

তাই সবার মতামত এমন হওয়া উচিত যে সার্টিফিকেট কোন ইসু না এটা শুধুমাত্র একটা দলিল হতে পারে। আপনি কতটুকু মেধা শ্রম ও দক্ষতা দিয়ে দিতে পারবেন এটাই সব থেকে বড় কথা।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালইয়ে খরচ

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি খরচ বাবদ সাধারণত 5000 টাকা হয়ে থাকে। তবে এক বছরে যে দুটি সেমিস্টার দুইটা সেমিস্টারের 4000 করে মোট 8 হাজার টাকা খরচ হতে পারে। আপনি যদি তিন বছর মেয়াদি অনার্স কোর্সে ভর্তি হতে চান তাহলে আপনার খরচ বাবদ 6 টি সেমিস্টারের মোট 24 হাজার টাকার মতো খরচ হতে পারে।

অর্থাৎ ভর্তির সময় আপনাকে পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে ভর্তি হতে হবে। আবার সেমিস্টার ফি 4000 করে মোট 6 সেমিস্টারের জন্য 24000 টাকা এছাড়াও ছোট খাটো কিছু খরচ থাকতে পারে সব মিলিয়ে আপনার খরচ আপনার সাধ্যের মধ্যেই হবে। তাই অবশ্যই ভর্তি হওয়ার আগে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম বা ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য গুলো জেনে নিবেন।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির যোগ্যতা

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য আপনাকে অবশ্যই এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পাস করতে হবে। আপনি যদি যে কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পাশ করে থাকেন।তাহলে আপনি উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে সেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি অবশ্যই সরকার কর্তৃক অনুমোদিত হতে হবে।

বর্তমান যেহেতু সবাই চায় উচ্চ শিক্ষা অর্জন করতে। কিন্তু পেশাগত দিক অথবা আর্থিক অনটনের কারণে অনেকে উচ্চশিক্ষা নেওয়া থেকে অনেকটা পিছিয়ে পড়েন। উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে আপনি যেকোনো বয়সেই আপনার পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেন। কেননা এখানে বয়সের উপর তেমন কোন গুরুত্ব দেওয়া হয় না।

অর্থাৎ আপনারা যে কোন বয়সের লোক উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হওয়ার জন্য যোগ্য।

মন্তব্য

পরিশেষে এটাই বলব যে আমরা আপনাদের সাথে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার নিয়ম গুলো নিয়ে সুন্দর ভাবে আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। এছাড়াও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কি কি বিষয় আছে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচ এবং সার্টিফিকেটের মূল্য নিয়ে আমরা ব্যাপকভাবে আলোচনা করেছি। যদি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পড়ে ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই আপনাদের বন্ধু শুভাকাঙ্ক্ষী অথবা পরিচিত জনের সাথে শেয়ার করতে পারেন। কেননা আপনার একটা শেয়ার এ তাদের অনেক উপকারে আসতে পারে।

আরো পড়ুন

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ – উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির যোগ্যতা 2022

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment