প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড, প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ কিছু সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০১ সাল থেকে প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ভাতা চালু করেছে বাংলাদেশ সরকার। সর্বশেষ ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য নতুন করে আবেদন নেয়া হচ্ছে। নতুন করে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করতে হলে প্রথমে অনলাইনে একটি ফরম পূরণ করতে হয় তারপর পূরণকৃত আবেদন ফরম ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করে সমাজসেবা জমা দিতে হয়।

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম

অথবা আপনি চাইলে প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড করে হাতে পূরন করে সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে আসতে পারেন।

আজকে আমরা দেখাবো প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড করার নিয়ম এবং প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা কিভাবে দেখবেন সে ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করব। আশা করছি আজকের ব্লগটি ভালোভাবে পড়লে এই ব্যাপারে আর কোন প্রশ্ন থাকবে না।

আরো পড়ুন – প্রতিবন্ধী ভাতা পাওয়ার নিয়ম, প্রতিবন্ধী ভাতা কবে দিবে, প্রতিবন্ধী ভাতা কত টাকা

প্রতিবন্ধী ভাতা কি এবং কেন দেয়া হয়

মূল আলোচনায় যাওয়ার আগে প্রতিবন্ধী ভাতা কি এবং কাদের দেয়া হয় এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাযক। বিশ্বের সব দেশে শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ কিছু সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা রাখা হয় যেমন তাদের জন্য আলাদা স্কুল কলেজ, এবং বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা রাখা হয়। বাংলাদেশ ও এর ব্যতিক্রম নয়। শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সরকার বিশেষ ধরনের ধাঁধা অর্থাৎ আর্থিক সহযোগিতার ব্যবস্থা রেখেছে। এই বিশেষ ধরনের আর্থিক সাহায্যের নামে প্রতিবন্ধী ভাতা এবং যারা সারিবদ্ধভাবে অসচ্ছল শুধুমাত্র তারাই এ ভাতা পাবেন।

প্রতিবন্ধী ক্যাটাগরি

যেমনটা আমরা বলেছি এই ভাতা শুধুমাত্র প্রতিবন্ধীরা পাবেন তাহলে আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে বাংলাদেশের নিয়ম অনুযায়ী কারা কারা প্রতিবন্ধীর তালিকার অন্তর্ভুক্ত হবেন। বাংলাদেশের নিয়ম অনুযায়ী শারীরিক প্রতিবন্ধী কে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে

  1. শ্রবণ প্রতিবন্ধী
  2. দৃষ্টি প্রতিবন্ধী
  3. বাকপ্রতিবন্ধী
  4. বুদ্ধি প্রতিবন্ধী
  5. শারীরিক প্রতিবন্ধী

কোন ব্যক্তি এই ৫ ক্যাটাগরির মধ্যে যেকোনো একটি ক্যাটাগরিতে পড়লেই তিনি প্রতিবন্ধী ভাতা পাওয়ার জন্য উপযোগী বলে গণ্য হবে। প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা পাবেন তা নিয়ে বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড

যেমনটা আমরা বলেছি প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন দুইভাবে করা যায়

  1. অনলাইনে আবেদন করে প্রিন্ট কপি সরাসরি সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে আসতে পারেন।
  2. প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড করে হাতে পূরণ করে সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে আসতে পারেন। নিচে আমরা দুইটি পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব

অনলাইনে প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদনের নিয়ম – আপনি যদি অনলাইনে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করতে চান তাহলে https://mis.bhata.gov.bd/onlineApplication এই লিংকে গিয়ে কিছু নির্দিষ্ট তথ্য পূরণ করে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করতে পারেন। আবেদন সম্পন্ন হয়ে গেলে আবেদন ফরম টি ডাউনলোড করুন এবং তারা সমাজসেবা অফিসে গিয়ে জমা দিয়ে আসুন।

অনলাইনে প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদনের নিয়ম বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড – আপনি যদি অনলাইনে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করতে না চান সেক্ষেত্রে আপনার ফরমটি ডাউনলোড করে হাতে পুরন করে সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে আসতে পারেন। প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করুন

লিংকে প্রবেশ করার পর দুই পৃষ্ঠার একটি আবেদন ফরম দেখতে পাবেন। ফরম টি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করুন এবং সম্পূর্ণ তথ্য সঠিকভাবে হাতে পূরণ করুন। তথ্য পূরণ করা হয়ে গেলে আপনার নিকটস্থ সমাজসেবা অফিসে গিয়ে জমা দিয়ে আসুন।

আরো পড়ুন – সরকারি প্রতিবন্ধী স্কুলের নামের তালিকা, ঢাকার সেরা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল সমূহ

প্রতিবন্ধী ভাতা কবে দিবে

২০২২-২৩ অর্থ বছরের প্রতিবন্ধী কোটা বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং অতিরিক্ত কোটার জন্য অনলাইনে আবেদন শুরু হয়ে গেছে। আগামী ১০-৮-২০২২ হতে ১০-৯-২০২২ পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হবে। উপরে আমরা বাংলাদেশের সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী প্রতিবন্ধীদের ক্যাটাগরি সম্বন্ধে আলোচনা করেছি। আপনি যদি উপরের যেকেউ যদি এই ক্যাটাগরির মধ্যে পড়ে তাহলে প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড করে তা নিকটস্থ সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে আসতে পারেন।

২০২২-২৩ অর্থ বছরে বর্ধিত কোটায় প্রতিবন্ধী ভাতার অর্থ G2P পদ্ধতিতে পরিশোধের নিমিত্ত আগামী ১০-৮-২০২২ হতে ১০-৯-২০২২ পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হবে।
আইডি ও পাসওয়ার্ড নিজ দায়িত্বে সতর্কতার সাথে ব্যবহার করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন করতে কি কি লাগে

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম পূরনের আগে আপনাকে জানতে হবে প্রতিবন্ধী ভাতা পাওয়ার জন্য কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন। যেহেতু এটি একটি সরকারি প্রজেক্ট তাই সবগুলো কাগজপত্র ঠিক ভাবে না থাকলে আপনি এই ভাতা পাবেন না। চলুন এক নজরে দেখে নেয়া যাক প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলো কি কি

জাতীয় পরিচয় পত্র (১৮ বছরের উর্দ্ধে)/ জন্ম নিবন্ধন (১৮ বছরের নীচে) – অর্থাৎ যিনি ভাতা নিলেন তার বয়স যদি ১৮ বছরের কম বয়সী ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন কার্ড এর প্রয়োজন পড়বে আর যদি বয়স ১৮ বছরের বেশি হয় সে ক্ষেত্রে অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্র লাগবে

সুবর্ণ নাগরিক কার্ড – আপনারা সকলেই জানেন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ পরিচয় পত্র ব্যবস্থা আছে যার নাম সুবর্ণ নাগরিক কার্ড। এই কার্ড ব্যতীত প্রতিবন্ধী ভাতা নেয়া সম্ভব নয়। তাই আপনার যদি সুবর্ণ নাগরিক কার্ড করা না থাকে প্রথমে সে কাজটি করে নিতে হবে।

সক্রিয় মোবাইল নম্বর (নগদ/ বিকাশ) – আবেদন করার সময় আপনাকে একটি মোবাইল নাম্বার দিতে হবে যে নাম্বারে বিকাশ অথবা নগদ একাউন্ট খোলা আছে। কেননা সরাসরি এই নাম্বারে আপনার ভাতার টাকা আসবে। যদি একই পরিবারের একাধিক ব্যক্তি ভাতার জন্য আবেদন করে থাকে সেক্ষেত্রে সবার জন্য আলাদা আলাদা ফোন নাম্বার দিতে হবে

প্রিন্ট করার ব্যবস্থা – অনলাইনে আবেদন শেষে আপনাকে একটি পিডিএফ ফাইল দেয়া হবে। সেই পিডিএফ ফাইলটি প্রেম করে আপনার নিকটস্থ সমাজসেবা কার্যালয়ে জমা দিতে হবে। তাই আবেদন করার সময় খেয়াল রাখবেন অবশ্যই প্রিন্ট করার ব্যবস্থা যেন থাকে। নয়তো ঝামেলায় পড়ে যাবেন।

প্রতিবন্ধী ভাতা কারা পাবে

  • যে এলাকায় সমস্যা অফিসে আবেদন ফরম জমা দিবেন সে এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে
  • আবেদনকারী ব্যক্তি বাৎসরিক মাথাপিছু আয় 36,000 টাকার কম হবে হবে
  • আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই 6 বছর বা তার বেশি হতে হবে
  • আবেদন করার সময় প্রদত্ত সকল তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে

প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম

আগামী ১০-৮-২০২২ হতে ১০-৯-২০২২ পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হবে। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখে নির্বাচিত ব্যক্তিদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। লিস্টে আপনার নাম অন্তর্ভুক্ত করা হলে এরপর থেকে প্রতি মাসে ৮৫০ টাকা করে প্রতিবন্ধী ভাতা পাবেন। প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা সংক্রান্ত সকল তথ্য এই ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখের এই ওয়েবসাইটে ঢুকে তাদের কাছে করে আপনার নাম আছে কিনা তা যাচাই করে দেখতে পারেন।

এছাড়াও তালিকা প্রকাশের পর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে দ্রুত তা প্রকাশ করা হবে।

প্রতিবন্ধী ভাতা কত টাকা করে দেয়

যেমনটা আমরা বলেছেন ২০০১ সাল থেকে প্রতিবন্ধীদের জন্য বাংলাদেশ সরকার ভাতার ব্যবস্থা করেন। ২০০১ সালে প্রতি মাসে ১০০ টাকা করে প্রতিবন্ধীদের ভাতা দেয়া হতো যা পরবর্তীতে বৃদ্ধি করে ৭৫০ টাকা করা হয়। সর্বশেষ ২০২২-২৩ অর্থবছরে প্রতিবন্ধী ভাতা দেবে 550 টাকা করা হয়। অর্থাৎ এখন থেকে প্রতিবন্ধীদের প্রতি মাসে ৮৫০ টাকা করে ভাতা পাবে। 

এবছরের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ২০২২-২৩ অর্থবছরের সর্বমোট ২৩ লক্ষ ৬৫ হাজার জনকে সরকারিভাবে হবে। মাসিক ভাতার পরিমাণ ৭৫০ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৮৫০ টাকা করা হয়েছে। প্রতিবন্ধী ভাতা কার্যক্রম খাতে মোট বরাদ্দের পরিমাণ ২৪২৯.১৮ কোটি টাকা। সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তি ছবি আকারে উপরে দেয়া আছে চাইলে দেখে নিতে পারেন। তাই আপনি যদি এখনো আবেদন না করে থাকেন  তাহলে দ্রুত প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম পূরন করে সমাজসেবা অফিসে যোগাযোগ করুন।

প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড

উপরে আমরা প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ফরম ডাউনলোড, প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি আশা করছি আপনাদের কিছুটা হলেও উপকারে এসেছে। ব্লগটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুও প্রিয়জনের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এছাড়াও আমরা নিয়মিত এই ধরনের পোস্ট করে থাকি। ভাল লাগলে আমাদের ওয়েবসাইটে অন্যান্য পোস্ট গুলো পড়ে দেখতে পারেন।

আরো পড়ুন – প্রতিবন্ধী ভাতা পাওয়ার নিয়ম, প্রতিবন্ধী ভাতা কবে দিবে, প্রতিবন্ধী ভাতা কত টাকা

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment