অন-পেজ SEO কিভাবে করবেন

হ্যালো বন্ধুরা! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি অন-পেজ এসইও কিভাবে করবেন এটা নিয়ে বিস্তারিত…

0 Comments

কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যায়

হ্যালো বন্ধুরা! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি আলোচনা করব কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম…

0 Comments

সর্দি কাশি গলা ব্যথার ওষুধ ছাড়া কিভাবে ভাল করবেন

হ্যালো বন্ধুরা! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি সর্দি কাশি জ্বর ওষুধ ছাড়া কিভাবে ভাল…

0 Comments

যে কোন মোবাইলের কল লিস্ট কিভাবে বের করবেন

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকে আমি আলোচনা করব কিভাবে আপনি অন্যের কল লিস্ট খুব সহজে বের করতে পারবেন…

0 Comments

ইউটিউব এর ভিডিও ভাইরাল করার উপায়

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি আলোচনা করব কিভাবে আপনি ইউটিউব এর…

0 Comments

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা!

কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন।
আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি।
আজকে আমি আলোচনা করব এন্ড্রয়েড ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস নিয়ে তো বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক:

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

এই মুহূর্তে যে গল্পটি দেখছেন সেটা নিশ্চয়ই একটি স্মার্টফোন আর আপনিও নিশ্চয়ই একজন স্মার্ট মানুষ কিন্তু আপনার মোবাইল ফোনে যেগুলো রয়েছে সেগুলো কি স্মার্ট স্মার্ট করতে হলে আপনার ফোনের এপ্রিল স্মার্ট হতে হবে তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি সিলেক্ট করেছে যে বিষয়গুলো আপনার ফোনে বর্তমান সময় অবশ্যই থাকা উচিত বা আপনার রেগুলার লাইফের জন্য এগুলো বেশ প্রয়োজনীয় কিভাবে লীগ করার জন্য আপনি এই প্রশ্নগুলো ব্যবহার করতে পারেন যেগুলোর কারণে আপনার খুব সহজে খুব রেগুলারলি চলাফেরা করতে পারবেন তো আপনাদের সাবস্ক্রাইব করে আমাদের সাথেই থাকুন এই এপ্লিকেশনগুলোকে আমি তিনটা ভাগে ভাগ করেছেন প্রথমত হচ্ছে মিডিয়া মিডিয়া সেক্টর যেহেতু আমরা স্মার্ট ফোন আসলে আমি দিয়ে পাঁচটা অনেক বেশি ইউজ করে থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্যই মিডিয়াকে প্রথম দেখেছি এরপরে হয়ে গেলে গুলাই গুলাই ফ্লাইট করার জন্য আমাদের কনেকটেকশন করা থাকলে পরে আমরা একটু বেরিয়ে আসলে মুহূর্তে চলাফেরা করতে পারব এবং অবশ্যই এডুকেশন হলো কিছু রেখেছে যেগুলো আমাদের লাইফের জন্য দরকার রয়েছে কারণ এই ভিডিও যারা দেখেছেন তারা ম্যাক্সিমাম স্টুডেন্ট কিছুটা উপকার হবে মিলিয়ে দিয়ে শুরু করি:

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

প্রথমে বলে নিয়েছি এখানে অনেকগুলো এডুকেশনের অলরেডি আপনার ফোনের বিল্ট-ইন থাকবে আবার অনেক মনে থাকবেনা যেগুলোতে থাকবে না তারা সেন্সর করে নেবেন প্রথম স্মার্টফোনের আমরা ক্যামেরা দিয়ে কিন্তু অনেক গুরুত্ব দিয়ে থাকে তো সেখানে মেইন ক্যামেরা অবশ্যই থাকে মেইন ক্যামেরা কোয়ালিটি যথেষ্ট ভাল হয় কিন্তু একই সাথে আপনি আপনার ফোনটা তে যে মিনস করতে পারেন যেখানে কোয়ালিটি সম্বন্ধে আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন যে এটা নর্মাল ক্যামেরা চাইতে ভালো ছবি দিতে সক্ষম আপনার ব্র্যান্ডের মডেল অনুযায়ী আপনি যে গানটা ডাউনলোড করে নিয়ে সেটা ব্যবহার করতে পারেন এবং গ্রামের ছবি অবশ্যই ভালো আসবে নর্মাল ক্যামেরা চাইতে এরপরে যে জিনিসটা রয়েছে সেটা হচ্ছে আপনারা অনেকেই মোবাইল ফোন দিয়ে ভিডিও করে ভিডিও শুট করার ক্ষেত্রে অনেক সময় মেয়ে যে ক্যামেরাটা রয়েছে সেটা ভালোভাবে কাজ করেনা ম্যাক্সিমাম সময় যে জিনিসটা হাইমেন ক্যামেরার সাথে আপনি মাইক্রোফোন ইউজ করে খুব ভালোভাবে সানডে ডেলিভারি দিতে পারছেন না এছাড়াও আরও অনেক সার্ভিস রয়েছে যেগুলো আসলে আমরা ডিএসএলআর ক্যামেরায় পাই বা প্রফেশনাল ভিডিও ক্যামেরা গুলোতে পেয়ে থাকে যেগুলো কিনা ফোনের বিল্ট-ইন ক্যামেরায় থাকে না সেজন্য আপনারা ভিডিও ক্যামেরার জন্য ওপেন ক্যামেরা টা ব্যবহার করতে পারেন গুগল প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন দেখবেন।

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

ক্যামেরা নামে একটি অপশন রয়েছে যেটা যথেষ্ট ভাল এবং ওইটা দিয়ে আপনারা ভিডিও শুট করতে পারেনা ভিডিও কোয়ালিটি যথেষ্ট ভাল হয়েছে আমিও মাঝে মাঝে মোবাইল ফোন দেই ভিডিও কলে ওইটা দিয়ে ট্রাই করি এরপর আছে মোবাইল ফোনে ফটো এডিট করবেন ফটো এডিটের জন্য অনেকগুলো এপ্লিকেশন রয়েছে তবে আমার কাছে আসলে যেটা ইউজার ফ্রি বা একেবারে সবকিছু নিয়ে একটা অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে সেটা হচ্ছে

পিকসার্ট

দেখে নিন Android ফোনের খুব প্রয়োজনীয় কয়েকটি অ্যাপস

এটা দেইখেন তো বেশ ভালোভাবে ছবি এডিট করা সম্ভব এবং এখানে আপনি চাইলে অনেক ধরনের কাজ করতে পারবে না একসাথে প্রথমত ছবির যে কালারের সাথে পড়তে পারবেন এই বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবে একই সাথে আপনার ছবিগুলো কে আপনি বিভিন্নভাবে করতে পারছেন দেবেন আপনার ছবির বেকগ্রাউন্ড গুলোকে খুব সহজেই পরিবর্তন করে ফেলতে পারবেন এছাড়াও অ্যাডোব ফটোশপে আমরা বিভিন্ন ধরনের কাজে ভাবে দেখে দেখে সেই ধরনের কাজ এটা দিয়ে করা সম্ভব এখানে আরো দুটো অ্যাপ্লিকেশনকে রাখতে পারেন সেটা হচ্ছে কালার কারেকশন এর জন্য আপনারা অবশ্যই রাখতে পারেন এরোপ্লেন এরোপ্লেন কিন্তু খুবই ভালো এবং এটা দিয়ে একদম আপনার কম্পিউটারের মতোই ফটো এডিট করা যায় কম্পিউটারে জাম প্লাজম দেখে থাকি মোবাইল ফোনের জন্য ভার্সনটা ভেবে কাজ করে আপনারা ব্যবহার করতে পারেন আস্তে আস্তে রয়েছে ট্রান্সলেটর ব্যবহার করতে পারেন।

ভিডিও এডিট করবেন কি দিয়ে ভিডিও এডিট করার ক্ষেত্রে আপনি কোন ধরনের এ্যাপ্লিকেশনটা ব্যবহার করতে পারেন এখানে আমি একটা টিউশন ফ্রি কমেন্ট করবে আমার কাছে মনে হয়েছে এটাই বেস্ট এবং এটা দিয়ে সবকিছু করা সম্ভব অ্যান্ড্রয়েডের জন্য একটি ফুল ফিচারস ভিডিও এডিটর কাইনমাস্টার প্রো আপনারা কাইনমাস্টার প্রো টা ডাউনলোড করে নিয়ে এটা দিয়ে আপনারা ভিডিও এডিট করতে পারবেন এবং একেবারেই প্রফেশনাল লেভেলের ভিডিও এডিট করা সম্ভব হচ্ছে আপনি ইউটিউব এর জন্য যদি বিক্রি করতে চান এটা দিয়ে খুব সহজে শেখা করা সম্ভব তো বন্ধ কর পরবর্তী পয়েন্ট অবশ্যই যাচ্ছে তার কাছে নিয়েছি ভিডিওটি আপনাদের কেমন লাগছে কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন সেই সাথে কমেন্ট করে সেটাও জানান এই তিনজনের বাইরে কোনো অ্যাপ্লিকেশনগুলো আমাদের ফোনে অবশ্যই থাকা উচিত এগুলো আমার ছিল তবে আমাদের পছন্দ অনুযায়ী আরো ভালোবেসে থাকার কথা রয়েছে সেগুলো জানালে আমার উপকার হবে এরপর আমরা যত মোবাইলে অনেক বেশি লেখালেখি করি অনেক সময় বাংলা লিখতে বাংলা লিখতে গেলে একটু বেশ সময় লেগে যায় সে ক্ষেত্রে আপনারা জীবনটা ইউজ করতে পারেন যদিও নুনু কিবোর্ড এর ব্যবহার করা যায় তবে আপনার জীবনের জন্য একটা বেস্ট হবে কারণ এটা গুগলের আন্ডারে হাট জিনিসটাই গুগোল রান করছে হঠাৎ আমরা অনেক সময় আস্তে উপরের একটা বাটনে চাপ দিয়ে যদি কথা বলি বাংলায় সে ক্ষেত্রে দেখা যাবে যে ওইগুলো।

সব লেখা হয়ে গেল সেখানে আরো কিছু আধুনিক ফিচারস রয়েছে আপনারা চাইলে গুগল কীবোর্ড ইউজ করতে পারেন আমার কাছে মনে হয়েছে মিডিয়ার জন্য আপনারা এ ধরনের বিষয়গুলো রাখতে পারেন এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ভিডিও প্লেয়ার মিউজিক প্লেয়ার রয়েছে সেগুলো আপনার প্রয়োজনীয় জিনিস নিতে পারেন তবে বর্তমান সময়ের মোবাইল ফোনের সাথে ব্রিটেনের সেগুলো থাকে এবং সেগুলো যথেষ্ট ভালো পর্যায়ে দেওয়া হয় এরপর আসে যার জন্য আমাদেরকে বিশেষ করে প্রয়োজন হতে পারে প্রথমত সেখানে আমরা অবশ্যই রাখবো গুগল ম্যাপ গুগল ম্যাপ থেকে প্রতিনিয়ত কাজে দরকার হতে পারে আমি ঢাকা শহরে বিভিন্ন জায়গায় করবেন অনেক সময় অনেকেই জানেন না লাগতে পারে এছাড়া আপনি ঢাকার বাইরে কোথাও গেলেন তখন আপনার প্রয়োজন পড়বে গুগল ম্যাপ টা অবশ্যই আপনাদের মনে রাখতে পারেন – খুবই জরুরী জিনিস এবং খুবই দরকারি জিনিস এরপর বিশেষ করে যারা ঢাকা শহরে রয়েছেন তাদের জন্য অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে সেটা হচ্ছে আপনার পাঠাও এদের মধ্যে যেখানে ডিভিশন রাখতে পারেন অবশ্যই আমি এখানে রিকমেন্ড করব পার্কে আমার কাছে মনে হয়েছে এদের সবগুলো ভেতরে বেস্ট সার্ভিস ওভারের আপনারটা রাখতে পারেন সেই ক্ষেত্রে আপনার যেকোন জায়গায় যাওয়া আসার ক্ষেত্রে আপনি মোটরসাইকেল হোক বা আপনার হোক যে কোন কিছু।

ব্যবহার করতে পারছেন এর পরে যে প্রশ্ন সেটা হচ্ছে গুগল ট্রান্সলেটর এটা আমাদের দরকার হয় এটি এডুকেশন পারপাস অফ পড়ে যায় আবার একই সাথে আমাদের দৈনন্দিন কাজের জন্য দরকার হয় বিভিন্ন সময়ে আমাদের বিভিন্ন কাজে ইংলিশ এর প্রয়োজন পড়ে আরো অনেকের অন্য ভাষার প্রয়োজন পড়ে সেই ক্ষেত্রে অবদান গুগল ট্রান্সলেটর রাখতে পারেন সেখানে আপনি দুইটা ভাষাকে সিলেট করে নেবেন আপনি যদি বাংলায় বলতে চান বাংলায় বলবেন এবং ইংলিশে কনভার্ট করতে চান সে ক্ষেত্রে বাংলায় ক্লিক করে কথা বলে দেখতে হবে জবাসে ইংলিশে সেই জিনিস গুলো লেখা উঠছে যদি আপনি ইংলিশ সিলেক্ট করে রাখেন আপনার সাথে কথা বলছেন জানেন সেই ক্ষেত্রে আপনার কথা বলার সময় ব্যবহার করতে পারেন যে কাজটা করবেন আপনি আপনার বাংলায় বলবেন এবং জিনিসটা আসলে ফ্রান্সে কমপ্লিট হয়ে যাবে এবং আপনি সেখান থেকে নিয়ে কপি করে নিয়ে কিন্তু তাকে ডেকে পাঠাতে পারবে না উঠছে কিন্তু এই জিনিসটা বুঝতে পারবে এরপরে বাংলাদেশের খুবই বিখ্যাত অ্যাপ্লিকেশন বাংলাদেশ খুবই পপুলেশন আড্ডা হচ্ছে বিকাশ বিকাশ না অবশ্যই আমাদের সবার রাখা উচিত তার বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কাজ আপনাকে ট্রান্সলেশন করতে হচ্ছে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই বিকাশটা রাখতে পারেন এটা প্রথমত হচ্ছে কি আপনার বিভিন্ন স্থানে টাকা পাঠানোর কিছু দরকার হবে।

একইসাথে আপনার মোবাইল ফোনের ব্যালেন্স রিচার্জ করে সেই ক্ষেত্রে বড় একটা কাজে দেবে আমার মনে হয় গত দুই আড়াই বছরে আমি কখন আসলে বাড়ি থেকে মোবাইল রিচার্জ করিনি সব সময় থেকেই করা হয় কারণ এটা অনেক স্মৃতি আমার কাছে মনে হয়েছে 500 থেকে জিনিসটা আমি যেকোনো জায়গায় ইনস্ট্যান্ট করতে পারছি সে ক্ষেত্রে বিকাশ আবেগ ধরে রাখতে পারেন এবং বিকাশ এখন নতুন অনেক ফিচার যোগ হয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন জায়গায় কেনাকাটা করতে পারছে না একইসাথে ব্যবহারের সুযোগ থাকছে করেন অবশ্যই বিকাশ অ্যাপ্লিকেশন টা রাখতে পারেন তার বিকাশের পাশাপাশি নগদ অ্যাপ্লিকেশন টা বর্তমানে কিন্তু বেশ জনপ্রিয় এবং নগদ টাকা দিতে পারে এরপর একটি প্রশ্ন রয়েছে যেটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন এবং যেটা ব্যবহার করলে আপনার লাইফের যে ঘরগুলো বাজে এক্সপেন্স গুলো এবং যে টাকাটা ইনকাম করছেন সে সমস্ত হিসাব রাখার জন্য প্রশ্ন সহ যাবে এক্সপেক্টেশন রয়েছে যেটা আপনার রাখতে পারেন সেটা আপনারা যে হিসেবে রাখতে পারবেন আপনার রেগুলার খরচ কত হচ্ছে এবং রেগুলার আপনার কত টাকা আর হচ্ছে আপনার কত টাকা ইনকাম করুন কত টাকা খরচ করে আয় ব্যয় হিসাব সেখানে রাখতে পারবেন এতে করে আমরা অনেক সময় উল্টা-পাল্টা খরচ করে ফেলেছে বিভিন্ন জন বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন।

তো সেই হিসেবে গোলাপের রাখতে পারেন যাতে আমার এই কাজটা করা উচিত বা এভাবে আমার চলা উচিত সেই সাথে আপনারা খুব সহজেই আপনি আপনার টাকা আয় ব্যয় হিসাব রাখতে পারবেন এরপর এডুকেশনাল পার্পাস যেগুলো বলছিলাম এদিকে সোনাপাড়া বিভিন্ন ধরনের প্রশ্ন রাখতে পারেন প্রথমত সেখানে ক্লাস নাইনের পুরো বই নিয়ে টেবিলে সন রয়েছে সেটা নিয়ে আমার একটা ডেডিকেটেড ভিডিও রয়েছে আপনারা চাইলে এই ভিডিও থেকে দেখে নিতে পারেন এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে যারা ক্লাস নাইনে রয়েছেন তাদের সমস্ত বইগুলো পড়া সেখানে পেয়ে যাবেন এবং আপনারা যদি কোন ট্রাভেল পারপাস থাকেন বা কোন একটা জায়গায় বেড়াতে গিয়েছেন কিন্তু আপনার পরীক্ষা খুব শীঘ্রই চলে আসার পর পড়াশোনা করার প্রয়োজন রয়েছে সেক্ষেত্রে আপনি এখান থেকে সাপোর্ট নিতে পারছেন এবং একই সাথে অন্য ক্লাস এর বই কিন্তু গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যায় আপনি সিঙ্গেল সিঙ্গেল অনেক ভয় পেয়ে যাবেন সেই বইগুলো আপনারা ডাউনলোড করে রাখতে পারেন যাঁদের যেটা দরকার রয়েছে এবং এখানে আরও বলেছিলেন যে গুগল ট্রান্সলেটর রয়েছে প্লাস ডিকশনারি ডিকশনারি ডাউনলোড করে অবশ্যই আপনার স্মার্টফোনে রাখতে পারে এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো আমার কাছে মনে হয় রেগুলার লাইভে আসলে চলার জন্য ভালোভাবে চলার জন্য দরকার হয় বা কোনও না কোনও সময় প্রয়োজন পড়ে।

অবশ্যই রাখতে পারেন এবং লাস্ট ওয়ান সেটা হচ্ছে 999 বাংলাদেশের ট্রিপল নাইন কিন্তু কার্যক্রম শুরু হয়েছে বেশ কিছুদিন আগেই আপনারা জানেন এবং এটা কিন্তু যথেষ্ট সাকসেসফুল একটা টিম তারা খাড়া রাখতে পারেন যার মাধ্যমে আপনি আপনার যেকোন ইমার্জেন্সি সেকশনে হোক আপনার সাথে কন্টাক্ট করতে পারবেন বিষয়টা বিভিন্ন পুলিশি সহায়তা আপনার এলাকায় কোথায় আগুন লেগেছে বা অন্য যেকোনো ধরনের সমস্যা হোক আপনি যেকোনো সময় কল করলে ইনস্ট্যান্ট তারা আমাকে হেল্প করবে এবং এটা চব্বিশ ঘন্টাই খোলা থাকে সুতরাং এলেকশন রাখতে পারেন আমি নিজেও ইউজ করি আমার কাছে মনে হয়েছে এগুলো আমাদের ফোনে থাকা দরকার রয়েছে এছাড়াও আরো অনেক জন রয়েছে যেগুলো আপনার কমেন্ট সেকশনে গিয়ে কমেন্ট করে জানাতে পারেন যে এই দৃশ্যগুলো থাকলেও আর বিশেষ করে ভালো হবে সেক্ষেত্রে আমার নিজেরও ভালো হবে আরও অনেকেরই উপকার হবে আজকের পোস্ট টি এটুকুই থাক দেখা হবে পরবর্তী পোস্টে।

আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করবেন। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানিয়ে আমি বিদায় নিচ্ছি এখানে দেখা হবে নতুন কোন পোস্ট।যে কোন প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করুন

facebook contact me

আমার আর অন্যান্য পোস্ট পড়ুন

মোবাইল হ্যাং করলে কি করবেন ?

ধন্যবাদ (more…)

0 Comments

প্রোগ্রামিং কি? কেন শিখা প্রয়োজন

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা ! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন। প্রোগ্রামিং কি? কেন শিখা প্রয়োজন এই পোস্ট টিতে আমি বলবো আপনি যে বিষয়ে…

0 Comments

ফ্রিল্যান্সিং কি? কোথা থেকে শুরু করবেন

হ্যালো বন্ধুরা!

কেমন আছেন সবাই?
আশা করি সবাই ভালো আছেন আর আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি ফ্রিল্যান্সিং কি এটা নিয়ে আলোচনা করব :

ফ্রিল্যান্সিং কি? কোথা থেকে শুরু করবেন

আপনি অনলাইনে একটি ক্যারিয়ার ডেভলপ করতে চান মানি ফ্রীলান্স ইন্ডাস্ট্রিতে আপনি জয়েন করতে চান একজন ফ্রিল্যান্সার কিন্তু বুঝতে পারছেন না ফ্রিল্যান্সিং বিষয়টা আসলে কি ফ্রিল্যান্সিং ইন্ডাস্ট্রিতে কিভাবে কাজ করে এবং কিভাবে আপনার দৈনন্দিন জীবনের শত ব্যস্ততার মাঝেও আপনি আপনার নিজের জন্য এ ফ্রীলান্স ইন্ডাস্ট্রিতে একটি সাসটেইনেবল ক্যারিয়ার গড়তে পারেন একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপার ফ্রিল্যান্সার এবং কনটেন্ট রাইটার ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে আমি এখন আপনার সাথে আমি কিছু কথা বলব এই বিষয়গুলো আপনাকে ভালোভাবে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য কারন আমি ফ্রিল্যান্সিং অনলাইন বিজনেস এই বিষয়গুলো সম্পর্কে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন বিষয় শিখতে আপনাকে সহযোগিতা করব তাহলে চলুন ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে এখন আমি আপনার সাথে কথা বলি একটু আগে বলা বিষয়গুলো আপনাকে ক্লিয়ার করে দেয়ার জন্য শুরুতেই আপনাকে বলব হোয়াট ইজ ফ্রিল্যান্সিং?

ফ্রিল্যান্সিং কি? কোথা থেকে শুরু করবেন

ফ্রিল্যান্সিং কি? কোথা থেকে শুরু করবেন

ফ্রিল্যান্সিং আসলে জিনিসটা কি ফ্রিল্যান্সিং জব এর মতোই আমরা যদি কোন কোম্পানিতে জব করতে চাই তাহলে আমরা কি করি ওই কম্পানি সার্কুলার দিলে তখন আর জবের জন্য এপ্লাই পরিচিতি সাবমিট করি এবং জবটি হয়ে গেলে সে কোম্পানিতে নির্দিষ্ট একটি দায়িত্ব পালন করতে থাকি এবং পার মান্থ স্যালারি জেনারেট হয় সে কাজের বিনিময় ফ্রিল্যান্সিং এ ধরনের একটি জব অনলাইনে বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন মানুষদেরকে হায়ার করে থাকে সে কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন কাজ করে দেয়ার জন্য যেমনটা কোম্পানি লঞ্চ নতুন লোগো ডিজাইন দরকার সরষে গ্রাফিক ডিজাইনারদের কে হায়ার করে করিয়ে নেয় আবার একটা কোম্পানির ওয়েবসাইট এর প্রয়োজন একজন ওয়েব ডেভেলপার কে হায়ার করে অনলাইনে সে কোম্পানি তাদের জন্য ওয়েবসাইট তৈরী করে নেয় আমি যেমন একজন ওয়েব ডেভেলপার আমি বিভিন্ন কোম্পানির জন্য ওয়েবসাইট তৈরী করে দেই এবং এটার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করি অর্থাৎ আপনি অনলাইনে আপনার যে দক্ষতা বা ইসকিল আছে যে বিষয়টা জানেন অথবা আপনি ভবিষ্যতে শিখে নিবেন সেই দক্ষতা দ্বারা আপনি বিভিন্ন কোম্পানিতে সহযোগিতা করবেন যার বিনিময় কোম্পানি আপনাকে পেমেন্ট করবে তবে নরমালি আমরা যে জব গুলো দেখি সেই জ্বর গুলোর সাথে ফ্রিল্যান্সিং জব এর একটা ডিফারেন্স আছে আমরা যদি আমাদের বাংলাদেশে কোন কোম্পানিতে জব করি তাহলে সে গ্রাফিক্স জব করি প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট টাইম ফিক্স করে এবং মাস শেষে আমাদের কাছে আলাদা জেনারেট হয় কিন্তু ফ্রিল্যান্সাররা অনলাইনে ফিক্সট কোন কোম্পানির জন্য অফিস জব করে না একটা নির্দিষ্ট টাইম অনুযায়ী তারা পুরো মাস ধরে কাজ করে না তারা কন্ট্রাক বেসিস কাজ করে এবং একাধিক কোম্পানির সাথে কাজ করে যার জন্য তারা প্রতি মাসে একাধিকবার পেমেন্ট পেয়ে থাকে যেমন ধরেন একজন ওয়েব ডেভেলপার ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারে সে এক মাসের দশটা কোম্পানির জন্য দশটা ওয়েবসাইট তৈরী করলো তাহলে সে দশবার কিন্তু পেমেন্ট পাবেন এবার যত টাকা করে হলে 500 ডলার 100 ডলার করে হলে 1000 ডলার।

এক্সাম্পল বললাম ঠিক একইভাবে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের লোগো ডিজাইন করতে পারে সেও যদি এক মাসের দশটা কোম্পানির জন্য দশটা লোগো ডিজাইন করে দেয় তাহলে সে দশবার আর্নিং করতে পারবে কিন্তু সাধারণভাবে আমরা যদি কোন কোম্পানিতে ফিক্স জব করি তাহলে পুরো মাস আসে আমরা মাত্র একবার আর্নিং করতে পারি যার জন্য ফ্রিল্যান্সারদের আর নেই সাধারণ জব ফর সুন্দর থেকে অনেকাংশে বেশি হয়ে থাকে আর প্রেমের গুলোর ডলারে হয়ত আর্নিং এর পরিমাণ বেশি হয় আমি তোর সাথে ফ্রিল্যান্সারদের কোন তুলনা করছি না আপনাকে বোঝানোর জন্য আমি তো একটা সাধারন এক্সাম্পল দিলাম আপনি যদি অলরেডি কোন কাজ করে থাকেন যেমন আমি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারি কম্পিউটার প্রোগ্রামিং পানির উপরে আমি ফ্রিল্যান্সিং করে বিভিন্ন কোম্পানির ওয়েবসাইট তৈরী করে দিন আপনার কোম্পানীর জন্য একটা ওয়েবসাইট লাগবে আপনি আমাকে বিয়ে করে নিতে পারেন এই যে অনলাইনে আপনি আমাকে দিয়ে আপনার কোম্পানীর জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে এনেছেন এইটাই হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং আপনিও ফ্রিল্যান্সার হতে চান তাহলে আপনার মধ্যে কোনটা আছে।

যদি কোন স্কেল না থাকে তাহলে যে কোন একটি বিষয়ে আপনি নিজেকে দক্ষ করে নিতে পারলেই সে বিষয়টা দাঁড়ায় আপনি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন অনলাইনে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে ফাইবার আবহাওয়ার ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস গুলোর মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির আপনার সহযোগিতা করতে পারবেন যেমনঃ মাইক্রোসফট ওয়ার্ড পারেন আপনি যদি মাইক্রোসফট এক্সেল পারেন এগুলো ছাড়াও আপনি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন যে কোন কাজ করা যায় ফ্রিল্যান্সাররা কন্ট্রাক্টর বেসিস কাজ করে থাকে তবে কাজ করেনা স্বাধীনতা আছে ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে তারা চাইলেই মাসে 10 জনকে জন্য কাজ করলো আবার চাইলে 20 জনের জন্য কাজ করলো আবার চলে কারো জন্যই কাজ করল না একটা স্বাধীনতা আছে ফ্রিল্যান্সিং এর পাশাপাশি আবার কিছুটা ইনসিকিউরিটি আছে যদি আপনার কাছে কোন ক্লান্তি না থাকে আপনি যদি কোনো ক্লান্তি না পান তাহলে আপনার ইনকাম না হওয়ার চান্স আছে কিন্তু আপনি যদি কোন বিষয় খুব ভাল হবে স্কিল ডেভেলপ করে নিতে পারেন তাহলে বেকার বসে থাকার সম্ভাবনা খুবই কম।

তাই ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে যে কোন একটি বিষয়ে আপনাকে পারদর্শী হয়ে নিতে হবে দেন আপনি যেকোন মার্কেটপ্লেসের জয়েন করার মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানি কে সহযোগিতা করার মাধ্যমে আপনি একটি শ্বাস নিন এবং ক্যারিয়ার ডেভলপ করতে পারেন তবে এটা তো গেল ফ্রিল্যান্সিং কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং করা ছাড়াও আরও বিভিন্ন উপায়ে আমি ক্যারিয়ার ডেভলপ করতে পারেন যার মধ্যে ইউটিউব হচ্ছে একটা ইউটিউব চ্যানেল শুরু করে সেখানে বিভিন্ন বিষয়ের উপর আপনি ভিডিও তৈরি করতে পারেন এবং একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে আপনি বিভিন্নভাবে আপনার জন্য ক্যারিয়ার ডেভলপ করতে পারেন এটার উপর আমি সম্পূর্ণ একটি ভিডিও পাবলিশ করেছে ভিডিও ডেসক্রিপশনে আপনি সেই ভিডিওটি দেখে নিয়েন ইউটিউবিং এর পাশাপাশি আরেকটি উপায় হচ্ছে ব্লগে আপনার একটি ওয়েবসাইটে আপনি যে বিষয়গুলো পারেন বা যে বিষয়গুলো আপনার জানা আছে সে বিষয়গুলোর উপর লেখালেখি করবেন একটা ওয়েবসাইটে লগইন করার মাধ্যমে বিভিন্নভাবে ক্যারিয়ার ডেভলপ করা যায় যেটার উপরে একটি ভিডিও পাবলিশ করে দিয়েছি অলরেডি ভিডিও ডেসক্রিপশন এ চেক করে নিয়েন।

ফ্রিল্যান্সিং ছাড়া অনলাইনে ক্যারিয়ার বিল করার আরেকটি জনপ্রিয় উপায় হচ্ছে অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট সেল করা যেটাকে ই-কমার্স বিজনেস বলা হয় এর উপরে একবার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আমি কমপ্লিট করে পাবলিশ করে দিয়েছে চ্যানেলে আপনি যদি সেটা শিখে নিতে চান তাহলে আপনি সেই পরিস্থিতি দেখে শিখে নিতে পারেন আমি নিচে ডিসক্রিপশন এ ই কমার্স পুরুষের লিঙ্গ দিয়ে দিব অর্থাৎ ইউটিউবিং বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ব্লগিং করা বা ই-কমার্স করা এগুলোতে আপনি আসলে কোন ফ্রিল্যান্সিং করবেন না বরং আপনার নিজের একটা কোম্পানি আপনি শুরু করবেন আপনার ইউটিউব চ্যানেল শুরু করা মানে এখানে আপনি কারও জন্য কাজ করবেন না আপনার নিজের জন্য কাজ করবেন যেমন ধরুন আমি মন চাইলো একটা ভিডিও আপলোড দিলাম মন ছলনা ভিডিও আপলোড দিলাম না কোন ক্লায়েন্টের জন্য কাজ করতে হচ্ছে না ওয়েবসাইটে আপনার যখন ইচ্ছা তখন আপনার ফ্রি টাইম আছে আপনি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালেখি করতে পারেন ঐখানেও আপনাকে কোন ক্লায়েন্টদের জন্য কাজ করতে হবে না আপনি সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে যখন মন চায় কনটেন্ট পাবলিশ করবেন যখন মজা করবেন না।

বিজনেস আপনি যতটুকু কাজ করবেন ততটুকুই ফিডব্যাক পাবেন অনলাইনে বিভিন্ন ওই আছে ক্যারিয়ার ডেভলপ করার আফ্রিকান ফ্রিল্যান্সার হয়ে বিভিন্ন কোম্পানি কে সহযোগিতা করতে পারেন তাদের বিজনেসকে আরোগ্য করতে অথবা আপনি নিজে একটা ইউটিউব চ্যানেল নিজে একটা ওয়েবসাইট লঞ্চ করে বাঁকা ই-কমার্স বিজনেস শুরু করে আপনি একটা ক্যারিয়ার ডেভলপ করতে পারেন যার কাছে যেটা ভালো লাগে আমি ফ্রিল্যান্সিংয়ের করছি ইউটিউবে করছি আবার ব্লগিং করছি আমার একটা ফ্রেন্ড আছে ওদের কে নিয়ে আমি কাজ করছি আপনার যেটা ভালো লাগে সেটা নিয়ে করবেন ফ্রিল্যান্সিং এর পাশাপাশি অন্যান্য উপায়গুলো বলে দিলাম যেন আপনি ডিসাইড করতে পারেন যে আপনার জন্য কোনটা বেস্ট হয় আমেরি কমেন্ট করছি এই ভিডিও ডিস্ক্রিপশন এর সমস্ত ভিডিও গুলো দেখে নিতে তাহলে আপনি আরও অনেক বিষয় সম্পর্কে জেনে যেতে পারবেন এখন আপনাকে বলব আপনি কিভাবে একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে উঠতে পারেন একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে ওঠার জন্য সবার প্রথমে যে বিষয়টি আপনাকে লক্ষ্য করতে হবে সেটা হচ্ছে যে কোন একটি বিষয়ের উপর নিজেকে দক্ষ করে তুলতে হবে।

যেমন ধরুন আমি ওয়েব ডেভলপার কম্পিউটার প্রোগ্রামিং করি এবং এই বিষয়ে আমি নিজেকে দক্ষ করে তুলেছি আবার ইউটিউবে ভিডিও তৈরি করার জন্য ভিডিও এডিটিং তাপস যত কিছু লাগে ভিডিও তৈরি করার জন্য এই বিষয়গুলো আমি শিখে নিয়েছি আবার ব্লগিং করি আমি লেখালেখি করতে পারি এখন অনলাইনে এতো এতো অপরচুনিটি এত ক্যাটাগরি সাবজেক্ট আছে যে আপনি চাইলে সবগুলো বিষয় নিয়ে কাজ করতে পারবে না শুরুতে যেকোনো একটি টপিক চেঞ্জ করুন একটি সাবজেক্ট চেঞ্জ করুন এবং সেইটাই সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে শিখতে শুরু করুন এটা করার জন্য অনলাইনে যে ফ্রীল্যান্স মার্কেটপ্লেস গুলোতে ফাইবার আবার ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোতে ভিজিট করুন তাদের জব ক্যাটাগরিগুলো দেখুন কত ধরনের জব সেখানে পাওয়া যাচ্ছে সে বিষয়গুলো একটু মনোযোগ দিয়ে লক্ষ্য করুন এবং নিজেকে জিজ্ঞেস করুন যে কোন বিষয়টা আপনার জন্য বেস্ট হতে পারে কোন বিষয়টা আপনার সবচেয়ে ভালো লাগে যে বিষয়টা আপনার সবচেয়ে বেশি ভালো লাগবে আপনের সেটাই করবেন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য এবং সে মনোযোগ দিয়ে শিখতে শুরু করো।

এখানে একটা প্রশ্ন আছে আমাকে অনেকেই জিজ্ঞেস করতে পারব কোথায় ভর্তি হতে পারে এক্সপ্রেস থেকে যেটা দেখেছি যারা অনলাইনে খুব ভালো সাকসেসফুল সাকসেসফুলি কাজ করছে তারা বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পড়ে পড়ে শিখে ইউটিউবে ভিডিও দেখে দেখে শিখে এছাড়াও অনলাইনে বিভিন্ন কোর্স পাওয়া যায় যেকোনো বিষয়ের উপরে কোর্স আছে যদিও বেশির ভাগই সব ইংরেজিতে এছাড়াও বাংলাদেশে এখন অনেক অনেক মেয়ের দল বিভিন্ন বিষয়ের উপরে অনলাইন কোর্স তৈরি করছে আপনি সেখান থেকে শিখে নিতে পারেন এছাড়াও পাশাপাশি আপনি যদি আপনার আশেপাশে ভালো কোন কোচিং সেন্টার ভালো কোন মেয়ের সন্ধান পান আপনি সেখান থেকে শিখে নিতে পারেন মূল বিষয়টা হচ্ছে আপনি যে বিষয়টা ইউজ করবেন সেই বিষয়টা কত দ্রুত আপনি কত ভালোভাবে শিখিয়ে নিতে পারেন এটাই থাকবে আপনার ফাস্ট গোল।

আজ এ পর্যন্তই। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং আমাদের সাইটের সাথে থাকবেন।যেকোনো প্রয়োজন আমার সাথে যোগাযোগ করুন

facebook contact me

আমার আর অন্যান্য পোস্ট পড়ুন

ডিজিটাল মার্কেটিং পরিপূর্ন গাইডলাইন ২০২২

ধন্যবাদ (more…)

0 Comments

সেনাবাহিনীর ট্রেড ২ কি কি পদে নিয়োগ দেওয়া হয়

সেনাবাহিনীর ট্রেড ২ কি কি পদে নিয়োগ দেওয়া হয়  হ্যালো বন্ধুরা ! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজকে আমি আলোচনা করব বাংলাদেশ…

0 Comments