কমদামে ভালো চার্জার লাইট – চার্জার লাইটের দাম (আপডেট প্রাইস)

ভালো চার্জার লাইট

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা। বর্তমানে লোডশেডিং এর কারনে সারাদেশের মানুষই বিদ্যুত সংকটে পড়েছে। ঢাকা শহরের মানুষ ই বর্তমানে লোডশেডিং এর কারনে নাজেহার অবস্থায় দিন পার করছেন আর সে তুলনায় গ্রামের অবস্থা আরো খারাপ। লোডশেডিং এর কারনে বাচ্চাদের পড়াশুনা থেকে শুরু করে গৃহিনীদের ঘরের কাজ সব বিঘ্নীত হচ্ছে। আর তাই পূর্বের যেকোন সময়ের তুলনায় বাজারে ভালো চার্জার লাইটের চাহিদা অনেক বেড়ে গেছে। আমরা আজকের ব্লগের মাধ্যমে চেষ্টা করবো চার্জার লাইটের দাম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে। আশা করছি আজকের আলোচনার পর  আপনার বাজেট অনুযায়ী ভালো মানের চার্জার লাইট পছন্দ করতে আপনার সুবিধা হবে। চলুন তাহলে ভালো চার্জার লাইট নিয়ে আমাদের মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

চার্জার লাইটের দাম

যেমনটা বলেছি আজকে আমাদের আলোচনার মূল বিষয় হচ্ছে ভালো চার্জার লাইট নিয়ে। অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চান ভালো চার্জার লাইটের দাম কেমন হয়। বর্তমানে বাজারে অনেক চাইনিজ কোম্পানির চার্জার লাইট পাওয়া যায় যেগুলো দামের দিক থেকে অনেক কম। এছাড়াও আমাদের দেশীয় অনেক কোম্পানিও বর্তমানে কমদামে চার্জার লাইট দেয়ার চেষ্টা করছে।।

বর্তমানে ভালো চার্জার লাইট কিনতে গেলে আপনার বাজেট রাখতে হবে ৩০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে। তবে চার্জার লাইটের ধরন ও কোম্পানি অনুযায়ী দাম আরো বেশি হতে পারে। তবে সাধারনভাবে বাসাবাড়ির জন্য একটি ভালোমানের চার্জার লাইট কিনতে চাইলে আপনার খরচ পড়বে ৩০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে। চার্জার লাইট কিনার সময় খেয়াল রাখবেন সাথে ওয়ারেন্ট আছে কি না। বেশিরভাগ কমদামি চার্জার লাইটের সাথে ওয়ারেন্টি পাবেন না তবে একটু ভালো মানের চার্জার লাইট এর সাথে ওয়ারেন্ট পেয়ে যাবেন।

৩০০ টাকার মধ্যে ভালো চার্জার লাইট

যারা বাসা বাড়ির জন্য কিংবা ছোট এক রুমের জন্য কমদামে ভালো চার্জার লাইট খুজছে তাদের জন্য আমরা চেষ্টা করবো ৩০০ টাকার মধ্যে ভালো কয়েকটি চার্জার লাইটের সন্ধান দিতে। ৩০০ টাকার মধ্যে বর্তমানে বাজারে নাম না জানা অনেক চার্জার লাইট ই পাওয়া যাচ্ছে তবে ভালোভাবে দেখে না কিনলে এই লাইটগুলো বেশিদিন ব্যবহার করা যায় না। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা চেষ্টা করবো ভালোমানের কয়েকটি লাইটের মডেল ও অনলাইন থেকে কিনার লিংক দিয়ে দিতে।

ভালো চার্জার লাইট
Model – YJ-6801

YJ-6801 এই মডেলের চার্জার লাইটলি বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ৩২৫ টাকায়। ৩০০ টাকার মধ্যে এর চেয়ে ভালো চার্জার লাইট আর আছে বলে মনে হয় না। চাইনিজ কোম্পানির এই চার্জার লাইটটিতে আছে ৩০০০ মিলি এম্পায়ার এর বড় ব্যাটারি। অর্থাৎ একবার ফুল চার্জে ব্যবহার করতে পারবেন টানা ৪ ঘন্টার মত। বর্তমানে দারাজ কিংবা বিভিন্ন ফেইসবুক পেইজে এই ভালো চার্জার লাইট পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন দামে। তবে সব যায়গায় দাম প্রায় ৩০০ টাকার আশেপাশেই হবে। আপনি দারাজ থেকে চার্জার লাইটি কিনতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

 

ভালো চার্জার লাইট
Model – Joykali light-7931

এখন আমরা যে চার্জার লাইটি নিয়ে আলোচনা করবো সেটি হচ্ছে আমাদের দেশীয় কোম্পানি জয়কলির একটি পন্য। কোম্পানিটি একদম ই নতুন হওয়ার চিনতে না পারার ই কথা তবে এই লাইটটি বাজারে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। Joykali light-7931 এই মডেলের চার্জার লাইটটি বর্তমানে পাওয়া ২৫০ টাকায়। চার্জার লাইটটির ভেতরে আছে ১৬ টি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পাওয়ার ফুল এল ই ডি লাইট যা আপনার ঘর ভালোভাই আলোকিত করবে। চার্জার লাইটটি ফুল চার্জ হতে সময় লাগে ২ ঘন্টা এবং একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৪ ঘন্টার মত আলো দেয়। এই লাইটটি ও ফেইসবুক বিভিন্ন গ্রুপে কমদামে কিনতে পাওয়া যায়। তবে আপনি চাইলে এই লিংকে ক্লিক করে সরাসরি দারাজ থেকে ক্রয় করতে পারেন।

ভালো চার্জার লাইট
Model – WALTON LED TORCH LIGHT 3W

ওয়ালটন কোম্পানি চিনেন না এমন মানুষ বাংলাদেশে খুজে পাওয়া যাবে না। বর্তমানে বাজারে WALTON LED TORCH LIGHT নামের মডেলের টর্চ লাইট পাওয়া যাচ্ছে। টর্চ লাইট হলেও এটির চার্জার লাইট হিসেবে ব্যবহার  করার ব্যবস্থা আছে। বর্তমানে বাজারে ওয়ালটনের লাইট টি পাওয়া যাচ্ছে ২৩৫ টাকায়। বর্তমানে ওয়ালটন প্লাজায় এবং লোকাল দোকান গুলোতে কিনতে পেয়ে যাবেন লাইটটি। দারাজ থেকে চার্জার লাইটটি কিনতে এই লিংকে ক্লিক করুন।

৫০০ টাকায় ভালো চার্জার লাইট

এতক্ষন আমরা ৩০০ টাকায় ভালো চার্জার লাইট নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। আপনার বাজেট যদি হয় ৫০০ টাকা তাহলে এর মধ্যে বেশ কয়েকটি ভালো চার্জার লাইট পাওয়া

ভালো চার্জার লাইট
Model – Portable charger light

portable rechargeable LED Powerful BATTERY Emergency এই মডেলের চার্জার লাইটটি বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৪৪৫ টাকায়। এই বাজেটে বর্তমানে বাজারে নাম না জানা অসংখ্য কোম্পানির প্রোডাক্ট পাওয়া যাচ্ছে কিন্তু আপনি যদি এমন একটি ভালো চার্জার লাইট নিতে চান যেটা অনেকদিন ব্যবহার করতে পারবেন এবং কমদামে বেশি আলো দিবে তাহলে এই লাইটটি আপনার জন্য। ৩২ টা পাওয়ারফুল এল ই ডি লাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার সম্পূর্ন রুম ভালোভাবেই আলোকিত হবে। এছাড়াও একবার ফুল চার্জে টানা ৬ ঘন্টা আলো দিবে চার্জার লাইটটি। তাই বলা ই যায় ৫০০ টাকার মধ্যে এই চার্জার লাইটটি খুব ভালো একটি অপশন হবে। বর্তমানে দারাজ সহ বিভিন্ন অনলাইন শপে লাইটটি পাওয়া যাচ্ছে। দারাজ থেকে কিনতে চাইলে এই লিংকে ক্লিক করুন।

চার্জার লাইট কিভাবে বানায়

অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চান চার্জার লাইট কিভাবে বানায়। বর্তমানে বাজারে যে চার্জার লাইট গুলো পাওয়া যায় তার দাম অনেক বেশি এবং কেনার পর টিকে ও অল্প কয়েকদিন। তাই আপনি চাইলে খুব সহজেই নিজে নিজে বানিয়ে ফেলতে পারেন চার্জার লাইট। এক্ষেত্রে আপনার খরচ পড়বে ১০০ টাকার মত কিন্তু আপনি নিশ্চিন্তে অনেকদিন ব্যবহার করতে পারবেন।

চার্জার লাইটের মূল পার্ট হচ্ছে ব্যাটারি। মোবাইলে ব্যবহৃত ব্যাটারি কিংবা লাইটের ব্যাটারি দিয়ে আপনি চার্জার লাইট বানাতে পারবেন। তবে আমাদের সাজেশন থাকবে লাইটের ব্যাটারি ব্যবহার করুন। লাইটের ব্যাটারি ব্যবহার করে কিভাবে চার্জার লাইট বানায় তা দেখতে চাইলে নিচের ভিডিওটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দেখুন।

সোলার চার্জার লাইট

ভালো চার্জার লাইট

বর্তমানে বাজারে বেশ কিছু সোলার চার্জার লাইট পাওয়া যাচ্ছে। যদিও লাইটগুলো কোন ভালো কোম্পানি নয় বরং চাইনিজ বিভিন্ন কোম্পানি বাজারজাত করন করছে। তাই লাইটের কোয়ালিটি কতটা ভালো হবে তা বলা যাচ্ছে না। তবে আপনি যদি অনলাইনে খোজাখুজি করেন তাহলে মোটামুটি কম দামে অনেক ভালো চার্জার লাইট পেয়ে যাবেন যেগুলোতে সোলার সিস্টেম আছে। সোলার সিস্টেম মানে হচ্ছে লাইটটি চার্জ দিতে কারেন্টের প্রয়োজন পড়বে না। সূর্য্যের আলোতেই খুব সহজে চার্জ দিতে পারবেন। বর্তমানে কোয়ালিটি ভেদে ৫০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকার মধ্যে বিভিন্ন সোলার সিস্টেম লাইট বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। তবে তুলনামূলক কমদামী সোলার লাইটগুলো কেনার দাবধানতা অবলম্বন করতে হবে কারন কমদামি সোলার লাইটগুলোতে সোলার সিস্টেম ঠিকভাবে কাজ করে না।

তাই আপনি যদি সোলার চার্জার লাইট কিনতে চান তাহলে আমাদের সাজেশন থাকবে বাজেট একটু বৃদ্ধি করে ভালো মানের সোলার চার্জার লাইট কিনুন। অনলাইনে বিভিন্ন শপে সোলার চার্জার লাইট গুল কিনতে পেয়ে যাবেন।

ভালো চার্জার লাইট কোথায় পাবো

উপরে আমরা ভালো চার্জার লাইট নিয়ে বিস্তারিত ধারনা দেয়ার চেষ্টা করেছি। অনেকে প্রশ্ন করেন এই চার্জার লাইটগুলো কোথায় কিনতে পাওয়া যায়। সেক্ষেতে আপনি অনলাইন বিভিন্ন শপ যেমন দারাজ বা ফেসবুক পেইজ থেকে খোজ করে ক্রয় করতে পারেন। আর যদি অফলাইনে কিনতে চান সেক্ষেত্রে ঢাকার নিউমার্কেট আপনার জন্য ভালো একটি পছন্দ হতে পারে। আর আপনি যদি ঢাকার বাইরে হোন সেক্ষেত্রে বিভিন্ন লোকাল শপে ও এই লাইটগুলো কিনতে পেয়ে যাবেন। তবে লোকাল শপ থেকে কেনার ক্ষেত্রে সাবধান থাকতে হবে কারন তারা অনেক সময় ডুপ্লিকেট পন্য ধরিয়ে দেয়।

উপরে আমরা ভালো চার্জার লাইট নিয়ে আলোচনা করেছি। আশা করছি ব্লগটি আপনার কাজে এসেছে। ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। আর আমাদের অন্যান্য ব্লগগুলো পড়ার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment