ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২ | কিস্তিতে কেনার নিয়ম

ওয়ালটন ফ্রিজ 2022

আপনি কি ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার কথা ভাবছেন? যদি ভেবে থাকেন তাহলে ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য কত তার সম্পর্কে জানতে চান? যদি আপনি ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হন তাহলে আজকের এই কনটেন্ট টি আপনার জন্য। বেশ কিছু আপডেট তথ্য নিয়ে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করব ইনশাআল্লাহ।

ওয়ালটন ফ্রিজ কেন কিনবেন?

বাংলাদেশের অধিক সময় ধরে গরম কাল স্থায়ী থাকে। তাই আমাদের খাদ্য সংরক্ষণ করার প্রয়োজন দেখা দেয়। বর্তমানে প্রতিটি পরিবারের জন্য একটি দরকারী উপকরণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাছ, মাংস, বিভিন্ন খাবার রান্না করা, শাকসবজি ও ফলমূল ইত্যাদি সংরক্ষণের জন্য আমাদের ফ্রিজ এর প্রয়োজন পড়ে।

আমরা হয়তো সবাই জানি ওয়ালটন আমাদের দেশীয় পণ্য। বাংলাদেশে পণ্য হিসেবে এটি খুবই প্রচলিত। দেশীয় পণ্য হিসেবে এটি কম দামে ও পাওয়া যায়। ওয়ালটন ফ্রিজ প্রতিটি মানুষের প্রায় পছন্দের তালিকা দখল করে নিয়েছে কেননা এর গুণগত মান এবং মূল্য এবং সার্বিক দিক ভালো হওয়ার কারণে।

ওয়ালটন ফ্রিজ অন্যান্য কোম্পানির ফ্রিজ এর চেয়ে গুনগত মান অনেক ভালো এবং দামের দিক দিয়ে ও কম। ওয়ালটন ফ্রিজ কিনলে আপনি বিভিন্ন রকমের সেবা পাবে্ন তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ,  12 বছরের ওয়ারেন্টি। এছাড়া ফ্রিজ ভেদে আরো কিছু অতিরিক্ত সুবিধা পাওয়া যায়।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা 2022

আজকে আপনাদের কাছে ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা তুলে ধরব এবং ওয়ালটন ফ্রিজ এর বর্ণনা করব ইনশাআল্লাহ।

ওয়ালটন ফ্রিজ 380 লিটার বা 18 সেফটি।

 

Walton wfc-3f5-gdne-xx দাম।

এই ফ্রিজ টিতে অত্যাধুনিক টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে এবং ফ্রিজটির ধারণক্ষমতা 380 লিটার। এই ফ্রিজটা মূল্য প্রায় 40 হাজার 490 টাকা। এই পেজটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ইন্টিলিজেন্ট ইনভার্টার যেটি আপনাকে আপনার বিদ্যুৎ অপচয় প্রায় অর্ধেক করে দিবে। এর কালার এবং ডিজাইন অনেক আকর্ষণীয়। যদি আপনার বাজেট বেশি হয়ে থাকে তাহলে এই ফ্রিজটা নিশ্চিন্তেই কিনতে পারেন।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা

ফ্রিজের কিছু বৈশিষ্ট্য:

  • ফ্রিজের নাম : Walton wfc-3f5-gdne-xx
  • ওয়ালটন ফ্রিজ এর দাম : 40 হাজার 490 টাকা।
  • ক্যাপাসিটি : 380 লিটার
  • দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ : 186 ও 65 সেন্টিমিটার
  • ওজন : 70 কেজি
  • ফ্রিজ থেকে ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম রয়েছে।
  • সৃষ্টিতে ব্যবহার করা হয়েছে ম্যাজিক্যাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি।
  • ফ্রিজ টিতে টেম্পার গ্লাস ডোর ব্যবহার করা হয়েছে।
  • ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার ব্যবহার করা হয়েছে। ফ্রিজ টি এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  • কালার : নীল এবং গোলাপি এই দুইটা কালার পাওয়া যাবে।

ওয়ালটন ফ্রিজ 348 লিটার বা 14 সেফটি

যারা মোটামুটি বাজেটে একটি বড় ফ্রিজ খুঁজছেন তাদের জন্য এটি একটি আদর্শ ফ্রিজ। এটা মোটামুটি বড় পরিবারে ও ব্যবহার করা যাবে। এই ফ্রিজ টির দাম প্রায় 36 হাজার 190 টাকা। ফ্রিজ থেকে 12 বছরের ওয়ারেন্টি পেয়ে যাবেন। মোটামুটি প্রাইসের মধ্যে ফ্রিজ নিতে চাইলে এই ফ্রিজ টি নিশ্চিন্তে নিতে পারেন।

ফ্রিজ এর কিছু বৈশিষ্ট্য

  • ফ্রিজার নাম : Walton wfc-3d8-gdne-xx
  • ফ্রিজের মূল্য : 36 হাজার 190 টাকা
  • ওজন : 71 কেজি
  • ক্যাপাসিটি : 348 লিটার
  • দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ : 174 ও 65 সেন্টিমিটার।
  • আরো যে সকল সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে তা হলো, ন্যানো হেলথকেয়ার, ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম, ইকোলজিক্যাল সেইফ, ফাস্টার কুলিং সিস্টেম ও লংগার ফুড ফ্রেশনেস ইত্যাদি সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে।
  • কালার : ফ্রিজ এর কালার দিয়ে অনেক আকর্ষণীয়। ফ্রিজ টতে কাল ও গোলাপি রঙের মিশ্রণ রয়েছে।

ওয়ালটন ফ্রিজ 132 লিটার বা 11 সেফটি।

এই ওয়ালটন ফ্রিজ ছোট পরিবারের জন্য মানসম্মত। পরিবারের সদস্য সংখ্যা কম হয়ে থাকলে আপনি এই মডেলের ফ্রিজ টি স্বল্পমূল্যে কিনতে পারেন। এই ফ্রিজটির ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম ও ফাস্ট কুলিং স্পিড ব্যবহার করা হয়েছে। ফ্রিজটির ছোট হওয়ার কারণে আপনার পছন্দমত যেকোনো জায়গায় রাখতে পারবেন।

ফ্রিজ এর কিছু বৈশিষ্ট্য :

  • ফ্রিজের নাম : wfd-1b6-gdel-xx
  • ফ্রিজের দাম : 19 হাজার 490 টাকা
  • ওজন : 42 কেজি
  • ক্যাপাসিটি : 132 লিটার
  • দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ : 132 ও 51 সেন্টিমিটার
  • ফ্রিজে ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে এবং এন্টি ফাংগাল ব্যবহার করা হয়েছে। ফ্রিজ টি ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক। ফাস্ট কুলিং স্পিড, প্রিভেন্ট ব্যান্ড ডোর ও ম্যাজিক্যাল ন্যানো টেকনোলজি, ইকোলজিক্যাল সেইফ ব্যবহার করা হয়েছে।
  • কালার : এটি মূলত দুইটি কালারে পাওয়া যায় গোলাপি এবং নীল।

 

ওয়ালটন ফ্রিজ 213 লিটার 12 সেফটি

এটিও একটি স্বল্প মূল্যের মধ্যে আকর্ষণীয় একটি ফ্রিজ। এই ফ্রিজ টির মূল্য মাত্র 25 হাজার 290 টাকা। আপনারা যারা স্বল্প মূল্যের মধ্যে একটু ভালো ফ্রিজ নিতে চান তাদের জন্য এই ফ্রিজ টি হতে পারে।

ফ্রিজ এর কিছু বৈশিষ্ট্য :

  • ফ্রিজ এর নাম : Walton wfa-2a3-gdel-xx
  • ফ্রিজ এর দাম : 25 হাজার 290 টাকা
  • ওজন : 45 কেজি
  • ক্যাপাসিটি : 213 লিটার
  • দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ : 151 ও 55 সেন্টিমিটার
  • ফ্রিজ টির সাথে আরো যে সকল বিষয় থাকছে তা হল : সাউন্ড ফ্রি টেকনোলজি, ডাইরেক্ট এবং ফাস্ট কুলিং ব্যবহার করা হয়েছে, এন্টি ফাংগাল ডোর গ্যাস্কেট ব্যবহার করা হয়েছে। ফ্রিজ টি ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক। ফ্রিজ কিতে এনার্জি সেভিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে।
  • কালার : দুই রকমের কালার পাওয়া যায় নীল ও গোলাপি।

 

ওয়ালটন ফ্রিজ 312 লিটার বা 14 সেফটি

ওয়ালটন কোম্পানির এই ফ্রিজ কি অনেক বেশি বিক্রি হয়েছে। এই ফ্রিজ টি স্টিল দিয়ে তৈরি। ফ্রিজ টি দেখতে অনেক সুন্দর। এই ফ্রিজে এনার্জি সেভিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে যার কারণে বিদ্যুৎ খরচ কম হয়। এটিএম মোটামুটি বড় ফ্যামিলির ব্যবহারের জন্য। ফ্রিজ টির মূল্য মাত্র 28 হাজার 790 টাকা। একটু বড় ফ্যামিলি হলে আপনার জন্য এই ফ্রিজ টি বেস্ট হতে পারে।

ফ্রিজ এর কিছু বৈশিষ্ট্য :

  • ফ্রিজের নাম : Walton wfe-3a2-nxxx-xx
  • ফ্রিজ টির মূল্য : 28 হাজার 790 টাকা
  • ওজন : 59 কেজি
  • দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ : 163 ও 60 সেন্টিমিটার
  • ক্যাপাসিটি : 312 লিটার
  • ফ্রিজ দিতে আরো যে সকল সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে তা হলো, ফ্রিজ টিতে লংগার ইনডোর ইনডোরিং কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। এনার্জি সেভিং এবং ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করা রয়েছে। ফ্রিজ টি বিএসটিআই অনুমোদিত। আরো ব্যবহার করা হয়েছে এন্টি ফাংগাল ডোর গ্যাসকেট ও ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন রয়েছে।

 

ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম কি?

আপনারা সবাই জানেন ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে নেওয়া যায়। কিন্তু আপনারা জানেন না ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম সম্পর্কে। আজকে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করব ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কিভাবে কিনা যায় তা নিয়ে।

আমরা উপরে কয়েকটি ফ্রিজের মূল্য সম্পর্কে ইতিমধ্যে জেনেছি। স্বল্পমূল্যে থেকে উচ্চ মূল্যের ফ্রিজ গুলো সম্পর্কে কিছুটা জেনেছি। চলুন দেখে নিই কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার নিয়ম কি। ধরুন আপনি 40 হাজার টাকার একটি ফ্রিজ কিনলেন কিন্তু আপনার পক্ষে পুরো টাকা টা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

তখন আপনি এক বছরের কিস্তিতে ফ্রিজ টি নিতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনাকে প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিতে হবে। এভাবে আপনার টাকা টি পরিশোধ করতে হবে। কিস্তিতে ফ্রিজ নিলে কোন ডিসকাউন্ট দেওয়া হয় না। আপনি ওয়ালটন শোরুমে যোগাযোগ করলে কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার বিস্তারিত নিয়ম জানতে পারবেন।  আরো বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

আরো পড়ুন:

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment