গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও খরচ কত

সরকারি গার্লস কলেজ

বর্তমানে বাংলাদেশে মোট ১২ টি সরকারি ক্যাডেট কলেজ রয়েছে এর মধ্যে ৯ টি ছেলেদের ও ৩ টি মেয়েদের অর্থাৎ গার্লস ক্যাডেট কলেজ। বয়েজ ক্যাডেট কলেজ নিয়ে অনলাইনে প্রচুর আর্টিকেল থাকলেও গার্লস ক্যাডেট কলেজ নিয়ে তেমন কিছু পাওয়া যায় না। আজকে আমরা সরকারি গার্লস ক্যাডেট কলেজ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করবো।

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও খরচ নিয়ে বিস্তারিত সকল তথ্য থাকবে আজকের আলোচনায়।

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম অনেক আছে তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নিয়ম নিচে দেওয়া হল

  • প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • ষষ্ঠ শ্রেণি অথবা সমমানের শ্রেণী থেকে পাশ করতে হবে।
  • প্রার্থীকে ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তীর্ণ হতে হবে। উর্ত্তীন্ন শিক্ষার্থীরা গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবে।
  • ক্লাস চলাকালীন প্রার্থীকে অবশ্যই নিয়মিত ক্লাসে আসতে হবে। কোনভাবে ক্লাস মিস দেওয়া যাবে না।
  • কলেজের বিভিন্ন ফাংশন এ যোগদান করতে হবে।
  • প্রার্থীকে অবশ্যই সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হবে। প্রার্থী যদি কোন রোগে আক্রান্ত থাকে তাহলে স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় তাকে বাতিল করা হবে।
  • গার্লস ক্যাডেট কলেজের শিক্ষার্থীদের কে অবশ্যই ক্যাডেট কলেজের হোস্টেলে থাকতে হবে।

এগুলো ছাড়াও গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম আরো অনেক নিয়ম আছে। যেগুলো আপনারা কলেজের নোটিশ বোর্ড থেকে সরাসরি জেনে নিতে পারবেন। অথবা তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জেনে নিতে পারবেন।

[irp posts=”3496″ ]

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তি যোগ্যতা

কোন শিক্ষার্থী গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তির যোগ্যতা সম্পন্ন হতে চাইলে তাকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। সেই সাথে উক্ত সময়ে তার বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ 13 বছর 6 মাস। ক্যাডেট কলেজ গুলোতে সাধারণত দৈহিক স্বাস্থ্যের ও উচ্চতার উপর বেশি জোর দিয়ে থাকে এখানে ভর্তির জন্য মেয়েদের উচ্চতা 4 ফুট 8 ইঞ্চি থাকতে হবে।

যদি উপরোক্ত বিষয়গুলো একজন শিক্ষার্থীর মাঝে থাকে তাহলে সে সরকারি ক্যাডেট কলেজে ভর্তির যোগ্যতা অর্জন করতে পারবে।

Girls Cadet College ভর্তি বিজ্ঞপ্তি 2023

গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি 2023 এখনো প্রকাশিত হয়নি। তবে ক্যাডেট কলেজ সূত্রে জানা গেছে খুব শীঘ্রই গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি 2023 প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা অথবা আপনারা যারা গার্লস ক্যাডেট কলেজের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি 2023 সম্পর্কে নিয়মিত আপডেট গুলো পেতে চাচ্ছেন। তারা চাইলে ক্যাডেট কলেজের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট এ সরাসরি প্রবেশ করে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অথবা ভর্তি তথ্য সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পেতে পারেন।

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও সরকারি ক্যাডেট কলেজে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি 2023 সম্পর্কিত যেকোন তথ্য পেতে ক্যাডেট কলেজের ওয়েবসাইট গুলো ভিজিট করে দেখতে পারেন।

বাংলাদেশের গার্লস ক্যাডেট কলেজ সমূহ

বাংলাদেশের মোট 12 টি ক্যাডেট কলেজ রয়েছে। তারমধ্যে গার্লস ক্যাডেট কলেজের সংখ্যা তিনটি। নিচে আমরা ৩ টি গার্লস ক্যাডেট কলেজ নিয়ে গুরুত্বপূর্ন কিছু তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজ

বাংলাদেশের মেয়েদের জন্য প্রথম স্থাপিত ক্যাডেট কলেজ হচ্ছে ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজ। এটি মূলত বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বাহিনী অধীনে সরকারি অনুদানে পরিচালিত স্বায়ত্তশাসিত একটি আবাসিক প্রতিষ্ঠান। এই কলেজটি ময়মনসিং অবস্থিত।

ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজ

ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজ ফেনী জেলায় অবস্থিত। এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ প্রতিরক্ষা বাহিনীর অধীনে সরকারি অনুদানে পরিচালিত স্বায়ত্তশাসিত আবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজ 1882 সালে প্রতিষ্ঠিত মেয়েদের জন্য প্রথম ক্যাডেট কলেজ।

জয়পুরহাট গার্লস ক্যাডেট কলেজ

জয়পুরহাট গার্লস ক্যাডেট কলেজ বাংলাদেশের জয়পুরহাট জেলার অবস্থিত মেয়েদের জন্য একটি ক্যাডেট কলেজ। এটি মূলত বাংলাদেশের 12 টি ক্যাডেট কলেজের মধ্যে সর্বশেষ ক্যাডেট কলেজ। যার শিক্ষার্থীর সংখ্যা 320 জন। এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বাহিনীর অধীনে সরকারি অনুদানের পরিচালিত স্বায়ত্তশাসিত আবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

ক্যাডেট কলেজ ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা

যেকোনো শিক্ষার্থী Girls cadet College কলেজে ভর্তির যোগ্যতা অর্জন করতে চাইলে তাকে গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও তার ন্যূনতম কিছু যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন যোগ্যতাগুলো হচ্ছে

  • জাতীয়তাঃ ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • বয়সঃ যে সময় আবেদন করবে সেই সময় তার বয়স হতে হবে 13 বছর 6 মাস।
  • শারীরিক উচ্চতাঃ শারীরিক উচ্চতা 4 ফুট 8 ইঞ্চি হতে হবে।শারীরিক উচ্চতা একই।
  • ফিটনেসঃ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর শারীরিক গঠন অথবা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হবে।

মূলত গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও ভর্তির যোগ্যতা জানা থাকলে খুব সহজে একজন শিক্ষার্থী ক্যাডেট কলেজে ভর্তির যোগ্য হতে পারবে।

ক্যাডেট কলেজে ভর্তির অযোগ্যতা

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও ভর্তির যোগ্যতা গুলো যদি একজন শিক্ষার্থীর মাঝে না থাকে তাহলে সেই শিক্ষার্থী অযোগ্য বলে বিবেচিত হয়।

  • পূর্ববর্তী কোন গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তি হলে। এবং সেখান থেকে লিখিত মৌখিক অথবা স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অযোগ্য বলে বিবেচিত হলে।
  • হাঁপানি, বাত, হৃদ রোগ ও মৃগী রোগ এ ধরনের রোগে আক্রান্ত থাকলে ক্যাডেট কলেজ ভর্তি অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।
  • জ্বর, যক্ষা, হেপাটাইটিস, আলসার, রাতকানা, ডায়াবেটিস ও হিমোফিলিয়া স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে যদি এই ধরনের রোগ গুলো দেখতে পাওয়া যায় তাহলে সেই প্রার্থী ক্যাডেট কলেজ ভর্তির অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

সরকারি ক্যাডেট কলেজে ভর্তির যোগ্যতা অর্জন করতে চাইলে যাদের মধ্যে উপরোক্ত এই দিকগুলো খুঁজে পাওয়া যাবে তারা ক্যাডেট কলেজে ভর্তির অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তি পরীক্ষার বিষয় এবং মানবন্টন

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম এর ভিত্তিতে গার্লস ক্যাডেট কলেজ গুলো মূলত তাদের ভর্তি পরীক্ষা চারটি বিষয়ের উপর নিয়ে থাকেন। অর্থাৎ গণিত, বাংলা, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ের উপর ভর্তি পরীক্ষা দিতে হয়। এবং ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন হচ্ছে

  1. গণিতের জন্য 100 নম্বর এর পরীক্ষা দিতে হয়।
  2. বাংলায় 60 নম্বরের মধ্যে পরীক্ষা দিতে হয়।
  3. ইংরেজিতে 100 নম্বরের মধ্যে পরীক্ষা দিতে হয়।
  4. সাধারণ জ্ঞানের 40 নম্বরের মধ্যে পরীক্ষা দিতে হয়।

সাধারণত এই চারটি বিষয়ে মোট 300 নম্বরের পরীক্ষা হয়ে থাকে।

ক্যাডেট কলেজ পড়ার সুবিধা

ক্যাডেট কলেজ পড়ার অনেক সুবিধা আছে সেগুলো হচ্ছে

  • এখানে পড়ালেখার মান অনেক উন্নত মানের
  • এখানে রয়েছে বিশাল বড় ক্যাম্পাস ব্যবস্থা।
  • নিয়ম শৃংখলার দিকটি এখানে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়।
  • পড়াশোনার পরিবেশ অনেক ভালো।
  • মেধা যাচাইয়ের সুব্যবস্থা থাকায় শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারে।
  • এখানে মূলত যারা পড়তে আসে তারা অনেক ভালো পরিবার অথবা পরিবেশ থেকে আসে। তাই যখন একজন শিক্ষার্থী এখানে পড়াশোনা করার জন্য আসবে তখন সে আশেপাশের অন্যান্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে।
  • এখানে পড়াশোনার পদ্ধতি একদম অন্য অন্য স্কুল কলেজগুলোর থেকে আলাদা অর্থাৎ সব কিছু নিয়ম শৃংখলার মাধ্যমে হয়ে থাকে।
  • কো কারিকুলাম একটিভিটিস থাকার কারণে শিক্ষার্থীরা আরো বেশি অ্যাক্টিভ থাকে তাদের লক্ষ্য পূরণের জন্য।
  • এখানে আছে হাসপাতাল সুবিধা কোন শিক্ষার্থী অসুস্থ হলে চিকিৎসার সুব্যবস্থা এখান থেকে পাবে।
  • হোস্টেলে থাকার সুব্যবস্থা আছে।
  • এখানে ক্যান্টিনের ব্যবস্থা আছ
  • স্পোর্টস এর ব্যবস্থা আছে।
  • লাইব্রেরী লাব জাদুঘরের ব্যবস্থা আছে।
  • বিনোদন এর সুব্যবস্থা আছে।

সাধারণত গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম ও শৃঙ্খলা বজায় রেখে যখন একজন শিক্ষার্থী গার্লস ক্যাডেট কলেজে ভর্তি হয়। তখন তিনি এই সুবিধাগুলো পেয়ে থাকে।

গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম

গার্লস ক্যাডেট কলেজে পড়ার খরচ

গার্লস ক্যাডেট কলেজ পড়ার জন্য কি রকম খরচ হতে পারে বা কি রকম খরচ হবে তা কলেজ কর্তৃপক্ষ কখনো সে বিষয়টা উল্লেখ করেন নি। তবে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দেওয়া তথ্য মতে একজন শিক্ষার্থীর খরচ তার অভিভাবকের অবস্থার উপর নির্ভর করে নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।

অর্থাৎ শিক্ষার্থীর বাবা কোন পেশার লোক তার কি রকম সামর্থ্য আছে সেই দিক বিবেচনা করে শিক্ষার্থীর মাসিক বেতন অথবা কলেজের অন্যান্য বেতন নির্ধারণ করে থাকেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। এখানে উচ্চবিত্ত এবং নিম্নবিত্ত শ্রেণীর শিক্ষার্থীর পড়ার সুবিধা আছে। যদি শিক্ষার্থীর বাবা উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা হয়ে থাকেন তার জন্য ভেতর এক ধরনের। এবং নিম্নবিত্ত শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জন্য খরচ অন্য রকমের হয়ে থাকে।

মন্তব্য

আজকে আমরা আলোচনা করার চেষ্টা করেছে গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নিয়ম গুলো সম্পর্কে। সেইসাথে গালস ক্যাডেট কলেজে ভর্তির যোগ্যতা এবং গার্লস ক্যাডেট কলেজ ভর্তির নূন্যতম যোগ্যতা ও অযোগ্যতা গুলো কি কি? ক্যাডেট কলেজ পড়ার সুবিধা এবং খরচ কি রকম হতে পারে সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছে।

আজকের আর্টিকেলটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাদের বন্ধু অথবা প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। আর্টিকেলটি সম্পর্কে কিছু জানার থাকলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট সেকশনে জানাবেন আমরা খুব দ্রুত আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

[irp posts=”3458″ ]

ইজি টেকিং - একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে বাংলা ভাষায় শিক্ষা ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষায় সবার মাঝে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

Leave a Comment